প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (ত্রয়োদশ সম্ভার).djvu/২৩১

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


*एथब्र कांबैौ সুমিত্রা মাথা নাড়িয়া জানাইল, হঁ। ডাক্তার কহিলেন, আমি তখন ছিতায় ভাঙা দল পুনর্গঠনে ব্যস্ত, একটা খবর পৰ্য্যস্ত পেলাম না যে, আমার একখানা হাত ভেঙে গেল । অথচ তার বিপক্ষে আদালতে বিচারের তামাসা যখন পুরোদমে চলেছিল তখন রক্ষা করা তাকে একবিন্দু কঠিন ছিল না। আমাদের অধিকাংশ লোক তখন ঐখানেই বাস করছিল। তবুও এতবড় দুর্ঘটনা ঘটলো কেন জানো ? ফয়জাবাদের মধুরা দুবে তখন অতি তুচ্ছ অবিচার-কুবিচারের পুনঃ পুনঃ অভিযোগে দলের মন একেবারে বিষ করে তুলেছিল । দুরাণীর মৃত্যুতে সবাই যেন পরিত্রাণ পেলে । আমি ফিরে আসার পরে ক্যানটনের মিটিঙে যখন সকল ব্যাপার জানা গেল তখন দুরাণীও নেই, মথুরাও টাইফয়েড জরে মরেচে। প্রতিকারের কিছুই আর ছিল না, কিন্তু ভবিষ্যতের ভয়ে সে রাত্রে গুপ্ত-সভা অতিশয় কঠিন দুটাে আইন পাশ করে । কৃষ্ণ আইয়ার, তুমি ত উপস্থিত ছিলে, তুমিই বল । - কৃষ্ণ আইয়ারের মুখ শুষ্ক হইয়া উঠিল, কছিল, আপনি কাকে ইঙ্গিত করচেন আমি.ত বুঝতে পারচিনে ডাক্তার। ডাক্তার লেশমাত্র ইতস্তত না করিয়া বলিলেন, ব্রজেন্দ্রকে । একটা আইনে এই ছিল, আমার আড়ালে আমার কাজের আলোচনা চলবে না,— ব্ৰজেন্দ্র বিদ্রুপের স্বরে প্রশ্ন করিলেন আলোচনাও চলবে না । ডাক্তার উত্তর দিলেন, না, আড়ালে চলবে না । কিন্তু চলে তা জানি। তার কারণ, সেদিনকার ক্যানটনের সভায় উপস্থিত ধারা ছিলেন দুরাণীর মৃত্যুতে তারা যতটা উদ্বিগ্ন হয়ে উঠেছিলেন, আমি ততটা হইনি, সুতরাং এ বস্ত চলেও আসচে, আমিও অবহেলা করেই আসচি। কিন্তু দ্বিতীয়টা গুরুতর অপরাধ, ব্রজেন্দ্র । ব্ৰজেন্দ্র তেমনি উপেক্ষাভরে কহিল, সেটা প্রকাশ করে বলুন । ডাক্তার কহিলেন, প্রকাশ করেই বলচি । আমার বিরুদ্ধে বিদ্ৰোহ স্বষ্টি করা মারাত্মক অপরাধ। দুরাণীর মৃত্যুর পরে এ বিষয়ে সাবধান হওয়া আমার দরকার । - ব্ৰজেক্স কঠিন হইয়া উঠিল, বলিল, সাবধান হওয়া দরকার অপরেরও ঠিক এমনি থাকতে পারে । জগতে প্রয়োজন শুধু আপনারই একচেটে নয়। এই বলিয়া সে সকলের দিকে চাহিল, কিন্তু সকলেই মৌন হইয়া রহিল, কেহই তাহার জবাৰ ििण नां । ডাক্তার নিজেও অনেকক্ষণ নিৰ্ব্বাক হইয়া রছিলেন, পরে ধীরে ধীরে বলিলেন, এর শাস্তি হচ্ছে চরম দও ! ভেবেছিলাম বাবার পূৰ্ব্বে আর কিছু করব না, কিন্তু ९९*