প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (ত্রয়োদশ সম্ভার).djvu/২৯৫

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


পথের দাৰী শ্ৰেয়ঃ । শশী এই প্রস্তাব অনুমোদন করিতে পারে নাই, সে যুক্তি-সহযোগে খণ্ডন করিয়া বুঝাইতেছিল যে, এরূপ অভিসন্ধি ভাল নহে, কারণ সন্ন্যাসের মধ্যে আর মজা নাই ; বরঞ্চ, বরিশাল কলেজে প্রফেসারির আবেদন যদি মঞ্জুর হয় ত গ্রহণ कब्रांद्दे कर्डदा । অপূৰ্ব্ব ক্ষুন্ন হইল, কিন্তু কথা কহিল না। ভারতী সমস্তই জামিত, তাই সে-ই ইহার জবাব দিয়া বলিল, জীবনে মজা করে বেড়ান ছাড়া কি মানুষের আর বড় উদ্বেত থাকতে পারে না, শশীবাবু ? পৃথিবীতে সকলের চোখের দৃষ্টিই এক নয়। " তাহার কথা বলার ধরণে শশী অপ্রতিম্ভ হইল। ভারতী পুনশ্চ কহিল, ওঁর মনের অবস্থা এখন ভাল নয়, এ সময়ে ওঁর ভবিষ্কং নিয়ে আলোচনা করা শুধু নিষ্ফল নয়, অবিহিত । তার চেয়ে বরঞ্চ আমাদের নিজেদের -- আমাদের মনে ছিল না ভারতী । শশীর মনে না থাকা কিছু বিচিত্র নয়। ইতিমধ্যে অপূৰ্ব্বর আরও একটা ব্যাপার ঘটিয়াছে, যাহা ভারতী ব্যতীত অপরে জানিত না । সাংসারিক হিসাবে তাহার ফল ও পরিণাম মাতৃ-বিয়োগের অপেক্ষ বিশেষ কম নহে। জননীর মৃত্যু সংবাদে অপূৰ্ব্বর দাদা বিনোদবার দ্বখ করিয়া তার করিয়াছেন, কিন্তু ইহার অধিক আর কিছু নহে। মা রাগ করিয়া, সম্ভবতঃ অত্যন্ত অপমানিত হইয়াই অবশেষে গঙ্গ-বিহীন মেচ্ছদেশে বর্শায় আপনাকে নিৰ্ব্বাসিত করিয়াছেন বুঝিতে পারিয়া অপূৰ্ব্ব ছাৰে ক্ষোভে আত্মহারা হইয়া পড়িয়াছিল। ষে দুই দিন কলিকাতায় ছিল, বাটতে খায় নাই, শোয় নাই এবং ফিরিবার মুখে রীতিমত কলহ করিয়াই আসিয়াছিল । তথাপি এত বড় ভয়ানক দুর্ঘটনায় সকলের কনিষ্ঠ হইয়া তাহার নিঃসঙ্গিন্ধ ভরসা ছিল, তাহাকে লইয়া যাইবার জন্য কেহু-না কেহ আসিবেই আসিবে। তেওয়ারী থাকিলে কি হইত বলা যায় না, কিন্তু সে-ও নাই, ছুটি লইয়া দেশে গিয়াছে । বাঙালী পুরোহিত এখানেও আছে, আজই সকালে অপূৰ্ব্ব ভারতীকে ডাকিয়া কহিয়াছিল, সে কলিকাতায় যাইবে না, যেমন করিয়া পারে মাতৃশ্ৰাদ্ধ এখানেই সম্পন্ন করিবে । মাতার আকস্মিক আগমনের হেতু যে ছেলেদের প্রতি দুর্জর মান-অভিমান,—এ খবর অপূৰ্ব্ব জানিয়া আসিয়াছিল, শুধু কতখানি যে ক্রীশান-কন্যা ভারতীর কাহিনী সংশ্লিষ্ট ছিল ইহাই জানে নাই। সাংঘাতিক পীড়িত অচৈতন্ত-প্রায় জননীর বলিবার আৰকাশ ঘটিল না এবং বিনোদবাবু রাগ করিয়া বলিলেন না। ՀԵՔ