প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (ত্রয়োদশ সম্ভার).djvu/৩০২

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শরৎ-সাহিত্য-সংগ্ৰছ উদ্যমে চলিতেছে, সহসা রসভা করিয়া কেলিল অপূৰ্ব্ব । সে কহিল, দিন-দুই পূর্বে খবরের কাগজে একটা স্বসংবাদ পড়েছিলাম, ডাক্তার। যদি সত্যি হয় আপনার বিপ্লবের প্রয়াস একেবারে নিরর্থক হয়ে যাবে। ভারত-গভর্ণমেণ্ট তাদের শাসনযন্ত্রের আমূল সংস্কার করতে প্রতিশ্রুতি দিয়েচেন । শশী চক্ষের পলকে রায় দিল, মিছে কথা ! ছল । ভারতী ঠিক ষে বিশ্বাস করিল তাহ নয়, কিন্তু অকৃত্রিম উদ্বেগের সহিত কহিল, ছলনা নাও ত হতে পারে শশীবাবু। যার নেতা, ধারা এই অৰ্ধশতাব্দকাল ধরে,— না দাদা, তুমি হাসতে পারবে না বলচি !—তাদের প্রাণপণ আন্দোলনের কি কোন ফল নেই ভাবো ? বিদেশী শাসক হলেও ত তারা মানুষ, ধৰ্ম্মজ্ঞান এবং নৈতিক বৃদ্ধি ফিরে আসা ত একেবাবে অসম্ভব নয় ] শশী তেমনি অসঙ্কোচে অভিমত প্রকাশ করিল, অসম্ভব । মিছে কথা ! ধাঙ্গাবাজী । অপূৰ্ব্ব কছিল, অনেকে এই সন্দেহই করেন সত্য। ভারতী বলিল, সন্দেহ তাদের মিথ্যে । ভগবান কি নেই নাকি ? এবং পরক্ষণেই অপরিসীম আগ্রহভরে বলিয়া উঠিল, শাসন-পদ্ধতির পরিবর্তন, অত্যাচার-অনাচারের সংস্কার,—এ সব যদি সত্যই হয়, তোমার বিপ্লবের আয়োজন, বিদ্রোহের স্বাক্ট,— তখন ত একেবারেই অর্থহীন হয়ে যাবে দাদা ! শণী কহিল, নিশ্চয়। অপূৰ্ব্ব কহিল, নিঃসন্দেহ ! ভারতী তাহার মুখপানে চাহিয়া কহিল, দাদা, তখন এই ভয়ঙ্কর মূৰ্ত্তি ছেড়ে আবার শাস্ত মূৰ্ত্তি নেবে বল ? ডাক্তার দেওয়ালের ঘড়ির দিকে চাহিয়া মনে মনে হিসাব করিয়া কতকটা যেন নিজেকেই কহিলেন, বেশি দেরি নেই আর । তাহার পরে ভারতীকে উদ্দেশ করিয়া অকস্মাৎ অত্যন্ত জিম্বভাব ধারণ করিয়া বলিলেন, ভারতী, এ আমার ভয়ঙ্কর কিংবা শাস্ত মূৰ্ত্তি আমি আপনিই জানিনে, শুধু জানি এ জীবনে এ রূপ আমার আর পরিবর্তন श्यांद्र नइ । श्रांब्र cठांभांद्र नभश cन७ॉरश्द्र,-डब cबद्दे दिशि, श्रांज उँटकब्र निzब्र আমোদ করবার আমার সময়ও নেই, অবস্থাও নয়। বিদেশী শাসনের সংস্কার যে কি, প্রাণপণ আন্দোলনের ফলে কি তারা চান, তার কতটুকু আসল, কতটুকু মেকি,-কি পেলে শশীর ধাপ্পাবাঙ্গী হয় না এবং নমস্তগণের কান্না ৰামে, তার কিছুই আমি জানিনে । বিদেশী গভর্ণমেণ্টের বিরুদ্ধে চোখ রাঙিয়ে যখন তারা চরম বাণী প্রচার করে বলেন, আমরা আর ঘুমিয়ে নেই, আমরা জেগেচি। আমাদের আত্মসম্মানে १**