প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (দশম সম্ভার).djvu/১৩২

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শরৎ-সাহিত্য-সংগ্ৰহ ভবানী বিশ্বয়াপন্ন হইয়া মুখ তুলিয়া চাহিবামাত্রই গোকুল বলিয়া উঠিল, তোমার বে। ত আর মিছে বলেনি যে, বিনোদ রাশ রাশ টাকা নষ্ট করচে ! বাবা র্তার বিষয় যদি আমাকে দিয়ে যান, তাতে আমার দোষ কি ? তুমি তার সঙ্গে বোঝাপড়া কর গে, আমাদের উপর রাগ করতে পারবে না, তা বলে দিচ্চি । ভবানী মৰ্ম্মাহত হইয়া ধীরে ধীরে বলিলেন, আমি কারো ওপরেই রাগ করিনি গোকুল, কারো সঙ্গে বোঝাপড়া করতে চাইনে । যদি চাও না ত ওরকম করে থাকলে চলবে না। বিনোদকে ব’লে সে যেন চাকরি-বাকরি করে । আমার বাড়িতে তার জায়গা হবে না। সে ত হবেই না গোকুল, এ আর বেশী কথা কি —বলিয়া ভবানী মুখ নীচু করিয়া বসিয়া রহিলেন । . ঝগড়া করিতে না পাইয়া গোকুল নিরুপায় ক্রোধে বিড় বিড় করিয়া বকিতেবকিতে চলিয়া গেল। স্ত্রীকে ডাকিয়া কহিল, আজ স্পষ্ট বলে দিলুম মাকে, বিনোদের এখানে আর থাকা হবে না—চাকরি-বাকরি করে যা ইচ্ছে করুক, আমি কিছু জানিনে। মনোরম আহলাদে আগাইয়া আসিয়া ফিস্ ফি জিজ্ঞাসা করিল, কি বললেন উনি । গোকুল অস্বাভাবিক উত্তেজনার সহিত জবাব দিল, বলবেন আবার কি ! আমি বলাবলির কি ধার ধারি! বড়বে চোখ ঘুরাইয়া কহিল, তবু, তবু ? গোকুল তেমনি করিয়াই কহিল, তবু আর কি ? তাকে স্বীকার করতে হ’লো যে—না, বিনোদের এ বাড়িতে থাকা চলবে না । তাহার স্ত্রী গলা আরো থাটো করিয়া কহিল, এ ষোল-জানা রাগের কথা, তা বুঝেচ ? মার মন পড়ে রয়েচে নিজের ছেলেটির পানে—এখন তুমি হয়েচ তার দু’চক্ষের বালি । গোকুল ঘাড় নাড়িয়া বলিল, তা আর বুঝিনি ? আমার কাছে কি চালাকি চলে ? বাহিরে আসিয়াই রসিক চক্রবর্তীকে স্বমুখে পাইয়া কহিল, বলি একটা নতুন খবর গুনেচ চকোত্তিমশাই ? এতকাল এত করে এখন আমিই হয়েচি মায় দু’চক্ষের বিব ! কথাবার্তা আর আমাদের সঙ্গে ক’ন না, স্বমুখে পড়লে মুখ ফিরিয়ে বসেন। চক্ৰবৰ্ত্ত অকৃত্রিম বিস্ময় প্রকাশ করিয়া কহিল, না, না, বল কি বড়বাৰু ? কি বলি ?-ওরে ও হাবুর মা, শোন শোন! $ १२.