প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (দশম সম্ভার).djvu/১৫৪

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শরৎ-সাহিত্য-সংগ্ৰহ মাস্টারমশাই প্রশ্ন করিলেন, কারবার, বিষয়-আশয় তোমার, না তোমার মায়ের, - গোকুল ? তা ছাড়া, তোমার বিমাতা এখন তোমার শক্রপক্ষে, সে সংবাদ রেখেচ ত ? গোকুল ঘাড় নাড়িয়া সায় দিলে বাড়য্যেমশাই খুশী হইয়া বলিলেন, তবে পাগলামি করো না ভায় ; রায়মশাইকে বিষয়-আশয়, ব্যবসা-বাণিজ্য সব বুঝিয়ে, চুপটি করে বসে বসে শুধু মজা দেখ। আমার কথা ছেড়ে দাও, নইলে আমন পাকা লোক একটা এ তল্লাটে খুজলে পাবে না। - গোকুল কহিল, সে ত জানি মাস্টারমশাই । কিন্তু মায়ের অমতে কোন কাজ করতে বাবা যে নিষেধ করে গেছেন। বঁড়িয্যেমশাই বিদ্রপ করিয়া হাসিয়া বলিলেন, নিষেধ ! মা যে তোমার শক্ৰ হয়ে দাড়াবে, সে কি তোমার বাবা জনে গিয়েছিলেন ? নিষেধ করলেই তো হ’লো না । নিষেধ শুনতে গিয়ে কি বিষয়টি খোয়াবে ? তা বল ? গোকুলের তরফে এ-সকল প্রশ্নের জবাব ছিল না ; তাই সে ঘাড় গুজিয়া নিঃশব্দে বসিয়া রহিল। রায়মশাই নেপথ্যে থাকিয়া সমস্ত শুনিতেছিলেন । এবার সদরে আসিয়া উপস্থিত হইলেন এবং এই দুইজন মহারথীর সমবেত জেরার মুখে গোকুল অকুলে ভাসিয়া গেল। তাহাকে অধোবদন এবং নিরুত্তর দেখিয়া উভয়েই প্রীত হইলেন এবং তাহার এই স্ববুদ্ধির জন্য তাহাকে বারংবার প্রশংসা করিলেন। বাড়ুৰ্য্যেমশাই বাট ফিরিতে উদ্যত হইলে, সফল-মনোরথ রায়মশাই আজ র্তাহার পদধূলি গ্রহণ করিয়া প্রণাম করিলেন এবং তিনি সস্নেহে গোকুলের পিঠ চাপড়াইয়া কহিলেন, আমি আশীৰ্ব্বাদ করচি গোকুল, তুমি যেমন তোমার যথা-সৰ্ব্বস্ব আমাদের হাতে সঁপে দিলে—তোমার তেমনি গায়ে আঁচড়টি পর্য্যস্ত আমরা লাগতে দেব না। কি বল রায়মশাই ? রায়মশাই আনন্দে বিনয়ে গদগদ হইয়া কহিলেন, আপনার আশীৰ্ব্বাদে সে দেশের পাচজন দেখতেই পাবে। কিন্তু শক্রদের আর আমি এ-বাড়িতে একটি দিনও থাকতে দেব না, তা আপনাকে জানিয়ে দিচ্চি বাড়ুয্যেমশাই। তা তারা আমার BBBB BB BBS BB BBSB BB S BB BB BBBS BBBB BB BBB তবে জলগ্ৰহণ করব । কে আছিস্ রে ওখানে ? ব্যাটা বামুনকে ডেকে আন দোকান থেকে ! বলিয়া রায়মশাই ইহারই মধ্যে ষোল আনা ছাপাইয়া সতর আনার মত একটা হুঙ্কার ছাড়িলেন । গোকুল সঙ্কুচিত ও অত্যন্ত লজ্জিত হইয়া মৃদ্ধশ্বরে কহিল, না না, এখন তাকে স্বাকবার আবগুক নেই। 300