প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (দশম সম্ভার).djvu/১৬৯

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বৈকুণ্ঠের উইল গোকুল সজোরে হাত ছাড়াইয়া লইয়া কহিল, না, আমি এক পা নড়ব না। উপর দিকে দৃষ্টিপাত করিয়া কহিল, বাবা শুনচেন, তিনি মরবার সময় বলেছিলেন কি না, গোকুল, এই রইল তোমাদের দু'ভায়ের বিষয় । বিনোদ যখন ভাল হবে তখন দিয়ো বাবা তার যা-কিছু পাওনা । ওপর থেকে বাবা দেখচেন, সেই বিষয় আমি যক্ষের মত আগলে আছি । কবে ও ভাল হয়ে আমার ঘরে ফিরে আসবে— দিবারাত্রি ভগবানকে ডাকচি-আর ও বলে আমি জোচ্চোয় । অায়, এগিয়ে আয় হতভাগ, আমার পা ছয়ে এদের সামনে বলে যা, তোর বড়ভাই চুরি করে তোর বিষয় নিয়েচে । বন্ধুবান্ধবের বিনোদকে চারিদিক হইতে ঠেলিতে লাগিলেন, কিন্তু সে উঠে না । বঁাডুয্যেমশাই খাড়া হইয়া তাহার একটা হাত ধরিয়া সজোরে টান দিয়া বলিলেন, বল না বিনোদ, পা ছুয়ে। ভয় কি তোমার ? এমন সুযোগ আর পাবে কবে ? বিনোদ উঠিয়া দাড়াইয়া কহিল, না, এমন সুযোগ আর পাব না। বলিয়া দুই পা অগ্রসর হইয়া আসিয়া কহিল, তোমার পা ছুতে বলছিলে দাদা, এই ছুয়েচি । আমি মদ খাই—আর যাই খাই দাদা, তোমাকে চিনি । তোমার পা ছয়ে তোমাকেই যদি জোচ্চোর বলি দাদা, ডান হাত আমার এইখানেই খসে, পড়ে যাবে। সে আমি বলতে পারব না; কিন্তু আজ এই পা ছুয়ে দিব্যি করে বলচি, মদ আর আমি ছোব না। আশীৰ্ব্বাদ কর দাদা, তোমার ছোটভাই বলে আজ থেকে যেন পরিচয় দিতে পারি তোমার মান রেখে যেন তোমার পায়ের তলাতেই চিরকাল কাটাতে পারি। বলিয়া বিনোদ অগ্রজের সেই প্রসারিত পায়ের উপর মাথা রাখিয়া শুইয়া পড়িল । }{2