প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (দশম সম্ভার).djvu/৩০৮

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শরৎ-সাহিত্য-সংগ্ৰহ ভালবাসি, কিন্তু এদের কাজ দেশের পক্ষে একেবারে ভয়ানক মারাত্মক। এই অ্যাকটিভিটিতে সমস্ত দেশ অন্তত: পচিশ বছর পেছিয়ে যাবে। তা ছাড়া এর মস্ত দোষ এই যে, স্বরাজ পাবার পরেও এ জিনিস যাবে না, তখন আরও স্পতি হয়ে উঠবে, সামান্ত মতভেদে একেবারে সিভিল ওয়ার’ বেধে যাবে। খুনোখুনি রক্তারক্তি আমি অস্তরের সঙ্গে ঘৃণা করি, শরৎবাবু। কিন্তু এই কথাগুলি তিনি যখনই যতবার বলিয়াছেন, ইংরেজী খবরের কাগজওয়ালারা বিশ্বাস করে নাই, উপহাস করিয়াছে, বিদ্রুপ করিয়াছে। কিন্তু আমি নিশ্চয় জানি, রাত্রিশেষের আলো-অন্ধকার আকাশের নীচে, নদীবক্ষে দাড়াইয়ু র্তাহার মুখ দিয়া সত্য ছাড়া:আর কোন বাক্যই বাহির হয় নাই। বহুদিন পরে আর একদিন রাত্রিতে র্তাহার মুখ হইতে এমনই অকপট সত্য-উক্তি বাহির হইতে আমি শুনিয়াছি। তখন রাত্রি বোধ হয় আটটা বাজিয়া গিয়াছে, আচাৰ্য্য রায়মহাশয়কে বাড়িতে পৌছাইয়া ফিরিয়া আসিয়া দেখিলাম, দেশবন্ধু সিড়ির উপর চুপ করিয়া দাড়াইয়া আছেন। বলিলাম, একটা কথা বলব, রাগ করবেন না ? তিনি বলিলেন, না। আমি বলিলাম, বাঙ্গলাদেশে আপনারা এই ৰে কয়জন সত্যকার বড়লোক আছেন, তা পরস্পরের সদর্শনমাত্রই আপনার পুলকে যে-রকম রোমাঞ্চিত কলেবর হয়ে ওঠেন— দেশবন্ধু হাসিয়া বলিলেন, বেড়ালের মত ? বলিলাম, পাপ-মুখে ও আর আমি ব্যক্ত করব কি করে। কিন্তু কিছু একটা না হলে— - দেশবন্ধুর মুখ গভীর হইয়া উঠিল। ক্ষণকাল স্থির থাকিয়া ধীরে ধীরে বলিলেন, কত যে ক্ষতি হয়, সে আমার চেয়ে বেশী আর কে জানে ? কেউ যদি এর পথ করে দিতে পারে, ত আমি সকলের নীচে, সকলের র্তাবে কাজ করতে রাজি আছি । কিন্তু ফাকি চলবে না, শরৎবাবু। সেদিন তাহার মুখের উপর অকৃত্রিম উদ্বেগের যে লেখা পড়িয়ছিলাম, সে আর ভুলিবার নহে। বাহির হইতে যাহারা তাহাকে স্বশের কাঙাল বলিয়া প্রচার করে, তাহারা না জানিয়া কতবড় অপরাধই না করে । জার ফাকি ? বাগুবিক, যে লোক র্তাহার সর্বস্ব দিয়াছে, বিনিময়ে সে ফাকি সহিবে কি করিয়া ? আর একটা কথা বলিবার আছে। কথাটা অপ্রীতিকর। সতর্কতা ও অতিবিজ্ঞতার দিক দিয়া একবার ভাবিয়াছিলাম, বলিয়া কাজ নাই, কিন্তু পরে মনে ३ैbr