প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (দশম সম্ভার).djvu/৭০

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শরৎ-সাহিত্য-সংগ্ৰহ নিৰ্ম্মল। সত্যিই আপনার সাহসের অবধি নেই। ষোড়শী। অবধি থাকবে কি করে নির্মলবাবু, ভৈরবী যে ! আস্থন ঘরে । নিৰ্ম্মল । না, ঘরে আর যাব না, আমাকে এখনি ফিরতে হবে। ষোড়শী। তবে এইখানেই বক্ষন । [ উভয়ের উপবেশন ] ষোড়শী । আজ তা হলে চলে যাওয়াই স্থির ? নিৰ্ম্মল। না, আজ যাওয়া স্থগিত রইল। রাত্রে ফিরে গিয়ে শুনতে পেলাম আজ সন্ধ্যাবেলায় মন্দিরের মধ্যে আপনার বিচার হবে। সভায় আমি উপস্থিত থাকতে চাই । ষোড়শী। কিসের জন্য ? নিছক কৌতুহল, না আমাকে রক্ষে করতে চান ? নিৰ্ম্মল। প্রাণপণে চেষ্টা করব বটে। ষোড়শী। যদি ক্ষতি হয়, কষ্ট হয়, শ্বশুরের সঙ্গে বিচ্ছেদ হয়, তবু ও ? নিৰ্ম্মল। হা, তবুও । [ ষোড়শী হাসিয়া ফেলিল ] (হাসিমুখে ) আপনি হাসলেন যে বড় ? বিশ্বাস হয় না ? ষোড়শী। হয় । কিন্তু হাসচি আর একটা কথা ভেবে। শুনি, আগেকার দিনে ভৈরবীরা না কি বিদেশী মানুষদের ভেড়া বানিয়ে রাখত, আচ্ছা ভেড়া নিয়ে তারা কি করত নিৰ্ম্মলবাবু? চরিয়ে বেড়াত, না লড়াই বাধিয়ে দিয়ে তামাসা দেখত ? ( বলিতে বলিতে ছেলেমামুষের মত উচ্ছ্বসিত হইয়া হাসিতে লাগিল। ) নিৰ্ম্মল । ( পরিহাসে যোগ দিয়া নিজেও হাসিয়া ) হয়ত বা মাঝে মাঝে মায়ের স্থানে বলি দিয়ে খেতে । 獻 ষোড়শী । সে ত ভয়ের কথা নিৰ্ম্মলবাৰু। নিৰ্ম্মল । ( সহাস্তে মাথা নাড়িয়া ) ভয় একটু আছে বই কি। ষোড়শী । একটু থাকা ভালো। হৈমকেও সাবধান করে দেওয়া উচিত। নিৰ্ম্মল । তার মানে ? ষোড়শী। মানে কি সব কথারই থাকে না-কি ? ( হাসিয়া ) কুটুমের অভ্যর্থনা ত হ’লো। অবশ্য হাসি-খুশি দিয়ে যতটুকু পারি ততটুকু—তার বেশী ত সম্বল নেই ভাই— এখন আস্কন দু’টো কাজের কথা কওয়া যাক । নিৰ্ম্মল। বলুন। ষোড়শী । ( গম্ভীর হইয়া ) দুটি লোক দেবতাকে বঞ্চিত করতে চায়। একটি রায় মহাশয়, আর একটি জমিদার— নিৰ্ম্মল। আর একটি আপনার বাবা । 始●