প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (দশম সম্ভার).djvu/৯৬

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শরৎ-সাহিত্য-সংগ্ৰহ জীবানন্দ । (একটু হাসিয়া) তা হলে তোমাকেও ত এদের সঙ্গে যেতে হয় এককড়ি। জমিদারের গোমস্তাগিরির কাজে তুমি যাদের ঘর জালিয়েচ সে ত আমি জানি । এদের আগুন দিতে কেউ চোখে দেখেনি, কেবল সন্দেহের উপর যদি তাদের শাস্তি ভোগ করতে হয়, জানা অপরাধের জন্ত তোমাকেও ত তার ভাগ নিতে হয়। এককড়ি । (প্রথমে হতবুদ্ধি হইয়া, পরে শুষ্ক হাস্যের সহিত ) হজুর মা-বাপ । আমাদের সাত-পুরুষ হজুরের গোলাম। হুজুরের আদেশে শুধু জেল কেন, ফালি যাওয়ার আমাদের অহঙ্কার । জীবানন্দ। যা পুড়েচে সে আর ফিরবে না ; কিন্তু এর পর যদি পুলিশের সঙ্গে জুটে নতুন হাঙ্গামা বাধিয়ে দু’পয়সা উপরি রোজগারের চেষ্টা কর, তা হলে হুজুরের লোকসানের মাত্রা ঢের বেড়ে আবে এককড়ি । পূজারী। মিস্ত্রী এসেছে হজুরের কাছে নালিশ জানাতে। জীবানন্দ। কিসের নালিশ ? পূজারী। মন্দিরের মেরামতি কাজে ঘটনাচক্রে তার বিশেষ লোকসান হয়ে যায়। মা বলেছিলেন, কাজ শেষ হলে তার ক্ষতিপূরণ দেবেন। আমি তখন উপস্থিত ছিলাম হুজুর। জীবানন্দ । তবে দেওয়া হয় না কেন ? পূজারী। (তারাদাসকে ইঙ্গিত করিয়া) উনি বলেন, ষে বলেছিল তার কাছে গিয়ে बांझांग्न कद्राङ । [ জীবানন্দ কুদ্ধ চক্ষে তারাদাসের প্রতি চাহিতে ] তারাদাস। অনেকগুলো টাকা— জীবানন্দ । অনেকগুলো টাকাই দেবে ঠাকুর। তারাদাস । কিন্তু খরচটা স্তায্য কিনা— জীবানন্দ । দেখ তারাদাস, ও সব শয়তানি মতলব তুমি ছাড়ো। ষোড়শীর ন্যায়জন্তায় বিচারের ভার তোমার ওপরে নেই। যা বলে গেছেন তাই কর গে। ( পূজারীর প্রতি ) মিস্ত্রী দাড়িয়ে আছে ? - পূজারী। অাছে হজুৰ। জীবানন্দ । চল, আমি নিজের গিয়ে সমস্ত মিটিয়ে দিচ্চি। [ জীবানন্দ, প্রফুল্প, তারাদাস ও পূজারীর প্রস্থান। রহিল শুধু এককড়ি । শিরোমণি ও জনাৰ্দ্দন রায়ের প্রবেশ ] জনাৰ্দ্দন। বাৰু গেলেন কোথা ?