প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (দ্বাদশ সম্ভার).djvu/১৬৭

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


(भएबच्न अंब्रेिष्ठग्न সবিত বাধা দিয়া বলিলেন, তুমি অনুরোধ করলেও সে আসতে পারবে না। শুধু তার দুঃখ বাড়বে মাত্র। বিমলবাবু থমকিয়া দাড়াইয়া বিম্মিতকণ্ঠে প্রশ্ন করিলেন, তার মানে ? সবিতা বলিলেন, আর একদিন শুনে । বিমলবাবু সবিতার মুখের পানে ক্ষণকাল তাকাইয়া থমকিয়া বলিলেন, ব্যাপারটা কি নতুন-বোঁ ? সবিতা বলিলেন, তার আসার উপায় নেই দয়াময়। নইলে আমার সঙ্গে আসা থেকে আমি নিজেও তাকে নিবৃত্ত করতে পারতাম কি-না সঙ্গেহ । যাই হোক, আমার আরও একটি অনুরোধ তোমার পরে রইলো। সারদা একলা থাকলে, মধ্যে মধ্যে তুমি তার খোজ-খবর নিও। সারদার ব্যবহারে তারক তার প্রতি এত বেশি অসন্তুষ্ট হইয়াছিল যে নতুন-ম সারদার অকৃতজ্ঞতার উল্লেখমাত্র না করিয়া বরং বিমলবাবুকে তার তদারক করিতে অনুরোধ করিলেন দেখিয়া মনে মনে জলিয়া গেল। মনের বিরক্তি ইহাদের সম্মুখে পাছে প্রকাশ হইয়া পড়ে সেজন্য এখান হইতে সরিয়া যাইবার ইচ্ছায় বলিল, শিবুর মা আর দারওয়ানটা ঠিক উঠেচে কি না আমি একবার দেখে আসি নতুন-মা। এই বলিয়া অনাবশ্যক দ্রুতপদে অন্তদিকে চলিয়া গেল । বিমলবাবু সবিতার পানে প্রশ্নস্থচক দৃষ্টি মেলিয়া বলিলেন, কি হয়েচে বলো ত ? তারককে একটু উত্তেজিত বলে মনে হচ্চে যেন । সবিতা মৃদু হাসিয়া বলিলেন, সারদা আমার সঙ্গে না আসায় তারক তার উপরে বিষম অসন্তুষ্ট হয়েচে । ওর ধারণা আমি পল্লীগ্রামে নানা অসুবিধার মধ্যে যাচ্ছি, সারদা সঙ্গে থাকলে হয়তো আমার অনেক সুবিধা হোতো । বিমলবাবু বলিলেন, সেটা শুধু তারকই ষে ভাবচে তা তো নয়। আমিও যে ঠিক ওই ভাবনাই ভাবচি নতুন-বোঁ ! সবিতা করুণ হাসিয়া বলিলেন, কিন্তু আমি আজ ঠিক এর উন্টে। ভাবনাই ভাবচি । বিমলবাবু সবিতার মুখে এত করুণ হাসি পূৰ্ব্বে দেখেন নাই। তাছার বুকের ভিতরটা বেদনায় যেন মোচড় দিয়া উঠিল। সবিতার মুখের পানে স্থিরদৃষ্টিতে তাকাইয়া বলিলেন, আমি শুনতে পাইনে নতুন-বো ? ক্লান্ত-কণ্ঠে সবিতা বললেন, সমস্ত কৰাই তোমার একদিন বলবো ভেবেচি। আর কেউই তো জামার এ অন্তৰ্বাহ বুঝতে পারবে না, বিশ্বাস করতে হয়তে চাইবে না। আমার অনেক জানাবার আছে। এই তেরো বৎসর ধরে দিনের পর দিন রাতের পর স্বাত ক্ৰমাগত ষে-প্রশ্ন আমার ব্লকের ভিতর আছড়ে-পিছড়ে মরচে, মালও ከmtባ