প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (দ্বাদশ সম্ভার).djvu/১৯৫

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শেষের পরিচয় षांtइब्र बॉफ़ । च्ॉभां★ ३िक tिब्र न cशक, ब्राष्ट्रब्र निtछब्र शिक श्रिज क्रूि ७ च्षभिांब्र রেঞ্জরও বাড়া। এখানে আমার ভুল হয়নি। - তারক চুপ করিয়া রছিল। ক্ষণকাল পরে প্রসঙ্গাম্ভর উত্থাপন করিয়া কছিল, ৰিমলবাবুর চিঠি তো কই এলো না মা আজও । সবিতা বলিলেন, তুমি কি তাকে সম্প্রতি চিঠি লিখেচ। লিখেচি ৰৈ কি ! আপনাকে তিনি চিঠি দেননি বোধ হয় আট-শদিন হৰে। তাই নয় কি ? ই। কিন্তু আমি তার আগের চিঠির জবাব এখনও পর্ব্যস্ত দিইনি। সেইজন্যই বোধ হয় আমাকে চিঠি লেখেননি। কারণ, তিনি কুশলে আছেন, সারদার পত্রে তো তা জানতেই পাচ্চি। তারক উচ্ছ্বসিত কণ্ঠে কহিল, ঐ একটি মানুষ দেখলাম মা, ধার পায়ের কাছে আপনিই মাথা নীচু হয়ে আসে। সবিতা জবাব দিলেন না । তারক আপনা-আপনিই বলিতে লাগিল, কি মহৎ মন, উদার চরিত্র, মুন্দর মানুষ। প্রকৃত কৰ্ম্মবীর। জীবনে এমন সাধককাম পুরুষ অল্পই চোখে পড়ে । সবিতা মৃদু হাসিয়া বলিলেন, ও-কথা কি হিসাবে বলচো তারক ? একমাত্র অধিক উন্নতি ভিন্ন সংসারে আর কোন চরিতার্থতা লাভ করেচেন ? কি-ই বা বড়ো আনন্দ সঞ্চয় করতে পেরেচেন সারা জীবনে ? তারক উচ্ছ্বাসের ঝোকে বলিয়া ফেলিল, যে পুরুষ নিজেরই সামর্ধে। অমন বিপুল অর্থ অনায়াসে উপার্জন করতে পারেন, এমন প্রকাও ব্যবসায় গড়ে তুলতে পারেন, তার জীবনে অন্ত ছোটখাটো সার্থকতা কিছু ঘটুক বা না ঘটুক তা নিয়ে আক্ষেপ নেই মা । পুরুষমানুষের কৰ্ম্মময় জীবনের এইরকম বিরাট সার্থকতার চেয়ে আর অন্ত কি কাম্য থাকতে পারে বলুন ? সবিতা হাসিলেন, জবাব দিলেন না। তারকের মুখে পুরুষমানুষের জীবনে উচ্চাকাঙ্ক্ষা ও উচ্চ আদর্শ সম্বন্ধে এ-পর্য্যন্ত তিনি অনেক বড় বড় কথা ও বৃহত্তর কল্পনাই গুনিয়া আসিতেছিলেন ; কিন্তু তাহার নিজের ব্যক্তিগত জীবনের আশাআকাঙ্ক্ষার সার্থকতার লক্ষ্য কোন পথে, তা সে কোনদিনও স্পষ্ট করিয়া নির্দেশ করিতে পারে নাই বা করে নাই। সবিতা তারকের জীবনের প্রধান লক্ষ্য এবং আশা-আকাঙ্ক্ষার স্বরূপের ঈষৎ আভাস এইবার যেন দেখিতে পাইলেন । র্তাহার চিস্তাধারা কেমন এক অনির্দিষ্ট শূন্যতার মধ্যে হারাইস্কা গেল । --

»ቂቑ÷oፀ