প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (দ্বাদশ সম্ভার).djvu/২২৩

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


उोइरकइ बाषञ्चकौञ्च ८भाषाक-नद्रिक्रन भाऊँन अंङ्कडि नब्रक्षांश गथलहे नबिड किंनिद्र क्रिब्राहइन । . . তারকের আহার শেষ হইলে সবিতা উপরে উঠিয়া আসিয়াছিলেন। অনেকক্ষপ পরে সারা উপরে আসিয়া বলিল, ম, আজও আপনি কিছুই মুখে দেবেন না ? ন। সারদা । আমার গলা দিয়ে কিছু গলবে না। তবে যদি আমার জন্ত না খেয়ে উপোস করতে চাও, তা হলে আমাকে খেতেই হবে, কিন্তু আমি জানি ভূমি তোমার মায়ের পরে এমন জুলুম করবে না। সারদা মলিন-মুখে দাড়াইয়া রহিল। সবিত বলিলেন, যাও মা তুমি খেয়ে এসো। সারদা তবুও নত-মুখে দাড়াইয়া শাড়ির আঁচলের একটা কোণ দুই হাতে অনাবশ্যক পাকাইতে লাগিল । সবিতা বলিলেন, মানুষ একবেলা না খেয়ে মরে না সারদা। কিন্তু খাওয়া অনেক সময়ে তার পক্ষে মরণাধিক যন্ত্রণাদায়ক হয়ে ওঠে। তবুও যদি তুমি আমাকে আজ খাওয়াবার জন্ত পীড়াপীড়ি করতে চাও, চলো না হয় যাচ্চি। সারদা একবার মুখ তুলিয়া যুদ্ধকণ্ঠে কহিল, না, থাৰু মা। আমি একাই যাচ্চি। শূন্ত কক্ষে আলো নিভাইয়া দরজায় খিল দিয়া সবিতা অনাবৃত মেঝের পরে এলাইয়া ওইয়া পড়িলেন। দুপুরে জাজ রাখাল আসিয়াছিল। সবিতা বিপন্ন স্বামী ও কস্তার সকল সংবাদই জানিতে পারিয়াছেন। সমস্ত দিনটা যেন অসাড়তার মধ্য দিয়া ছায়ার মত কাটিয়া গিয়াছে রাত্রির স্তন্ধ নির্জন অৰকাশে বেদন-ভারাতুর অন্তরতলে কতকটা যেন সাড় ফিরিয়া আসিতেছে। নিৰ্মীলিত নয়নদ্বয়ের অবিরল বিগলিত অশ্রধারায় কঠিন কক্ষভল, অষত্নবদ্ধ কোমল চুলের রাশি ভিজিয়া উঠিতে লাগিল। কোনও শব্দ নাই, চাঞ্চল্য নাই, নিম্পন্দদেহে প্রসারিত বাহুর পরে মাথা রাখিয়া, মাটিতে একপার্শ্ব হইয়া পড়িয়া আছেন। উপায়হীন ক্ষতির ক্ষোভে র্তাহার সমস্ত হৃদয় মন আজ কাতর ও বিকল। কোনও সানাই আর খুজিয়া পাইতেছে না। আপনার সন্তানের এত দুঃখ ও কৃচ্ছ্রসাধন তাহাকে অহরহ যে অগ্নিকশার আঘাতে জর্জরিত করিয়া তুলিতেছে। সমস্ত জস্তর ক্ষতবিক্ষত হইয়া গেলেও বেদনায় আৰ্ত্তনাদ করিবার উপায় কই ? বলির পশুর মতো রক্তাক্ত দেহে ধূলায় পড়িয়া ধড়ফড় করা ছাড়া গতি নাই ! आज ऊँाशद्ध छूबिउ याङ्कशनग्न झुंझे वाइ बाफ़ाहेब याशप्क बूकब्र मtषा ऐानिङ्गः লইবার জন্ত ব্যাকুল, হৃদয়-নিঙড়ানো অফুরন্ত স্নেহয়সে যাহাকে অভিসিঞ্চিত কৰুিৱাও, তৃপ্তি নাই, সংসারে সেই আজ তাহার সবার বাড়া পর, गयाब cबनि बूझ्द्र माइव इहेब निंबाटइ । سیار . . . . . . . . &〉。