প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (দ্বাদশ সম্ভার).djvu/২৯৯

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


‘. . হৰি- با ,ت * د जबङ्ग-डिकाइ नाब कदिइ चाब ऊंशरक चाशन कवित्र कङ्गना७ कदिन न। ज्वी চিৰা এই ৰে, তাহার ঘাহা কিছু আছে, সব দিয়াও পিতাকে ঋণমুক্ত করা বাইরে কি না । গ্রামের মধ্যেই একজন ধনী মহাজন ছিল। পরদিন সকালেই সে তাহার কাছে গিয়া গোপনে সৰ্ব্বৰ বিক্ৰী করিবার প্রস্তাৰ করিল। দেখা গেল, যাহা তিৰুি, দিতে চাহেন, তাহাই যথেষ্ট। টাকাটা সে সংগ্ৰহ করিয়া ঘরে জানিল, কিন্তু একজনে, অকারণ হৃদয়হীনতা যে তাহার সমস্ত দেহ-মনের উপর অজ্ঞাতসারে কতবড় আঘাত দিয়াছিল, ইহা লে জানিল তখন, যখন সে জরে পড়িল । . . . কোথা দিয়া ষে দিন-রাত্রি কাটিল, তাহার খেয়াল রহিল না। জ্ঞান হইলে উঠিয়া বলিয়া দেখিল, সেইদিনই তাহার মেয়াদের শেষ দিন । আজ শেষ দিন। আপনার নিভৃত কক্ষে বসিয়া মা-শোয়ে কল্পনার জাল বুনিজে ছিল। তাহার নিজের অহঙ্কার অনুক্ষণ ঘা খাইয়া খাইয়া আর একজনের অহঙ্কারকে একেৰারে অপ্ৰভেদী উচ্চ করিয়া দাড় করাইয়াছিল। সেই বিরাট অহঙ্কার আজ তাছার পালে পড়িয়া যে মাটির সঙ্গে মিশাইবে, ইহাতে তাহার লেশমাত্র সংশয় ছিল | || এমন সময় তৃত্য আসিয়া জানাইল, নীচে বা-থিন অপেক্ষা করিতেছে। মাশোয়ে মনে মনে কুর হাসি হাসিয়া বলিল, জানি। সে নিজেও ইহারই প্রতীক্ষা করিতেছিল। * মা-শোয়ে নীচে আসিতেই বা-খিন উঠিয়া দাড়াইল। কিন্তু তাহার মুখের দিকে চাহিয়া মা-শোয়ের বুকে শেল বিধিল ৷ টাকা সে চাহে না, টাকার প্রতি লোভ তাহার কানাকড়ির নাই, কিন্তু সেই টাকার নাম দিয়া ভয়ঙ্কর অত্যাচার যে অনুষ্ঠিত হইতে পারে, ইহা, সে আজ এই দেখিল । *: বা-থিন প্রথমে কথা কহিল, বলিল, আজ সাতদিনের শেষ দিন, তোমার টাকা জানিয়াছি । হায় রে, মানুষ মরিতে বসিয়াও দৰ্প ছাড়িতে চায় না। নইলে প্রত্যুত্তরে এমন কথা মা-শোয়ের মুখ দিয়া কেমন করিয়া বাহির হইতে পারিল যে, সে সামান্য কিছু টাকা প্রার্থনা করে নাই—খণের সমস্ত টাকা পরিশোধ করিতে বলিয়াছে। ৰ-থিনের পীড়িত শুষ্ক মুখ হাসিতে ভরিয়া গেল, বলিল, তাই বটে, তোষার সমস্ত টাকা জানিয়াছি । • সমস্ত টাকা ? পাইলে কোথায় ? কালই জানিতে পারিবে । ওই বাকলটায় টাকা আছে, কাহাকেও গনিয়া লইতে शृङ । X গাঙ্কোয়ান ভারপ্রাপ্ত হইতে তাহাকে লক্ষ্য ৰবি জিজ্ঞাসা করিল, আৰু ক্ষত্ত સન્મ - ۹ دسا کندلا