প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (দ্বাদশ সম্ভার).djvu/৩১২

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


अंब्र९-नांहिङ-न84श् DD DDSBBD DDDBB BD DD BD DDD BB BB BDD DD ক’টাকে জন্মের মতো রাস্তায় গুইয়ে রেখে তৰে ঘরে যাবো । শেতলার নয়ন ছাতি জামি—জার কেউ নয়। বলি, নাম শুনেছিল, না এমনিই লাঠি হাতে ভিখিরী যেৱে বেড়াল ? হারামজাদা শিয়াল-কুকুরের বাচ্চারা । - গাছের তলা একেবারে স্তৰ। মিনিট-দুই স্থির থেকে নয়ন পুনরায় অধিকতর কটু ভাষায় হাক দিলে—কি রে জালবি, না টাকাগুলো ট্যাকে নিয়েই ঘরে বাৰো ? কোন জৰাব নেই। পথের উপরে দু-তিন গাছ পাবড় পড়ে ছিলো, নয়ন একে একে কুড়িয়ে সেগুলো সংগ্রহ করে বললে,—চলে দাদা, এবার ঘরে বাই। রাত হয়ে এলো, তোমার ঠাকুরমা হয়ত কত ভাবচেন। ওরা সব শিয়াল-কুকুরের ছানা বই ত নয়, মাছবের কাছে আলবে কেন ? তুমি একগাছা ছিপ-হাতে তেড়ে গেলেও সবাই हूर नाजांव शांक्षांखांझे । ইতিমধ্যেই আমার ভয় ঘুচে সাহল বেড়ে গিয়েছিল, বললাম—যাবে তেড়ে নয়না। নয়ন হেলে ফেলল। বললে,—থাকগে দাদা, কাজ নেই! কামড়ে জিতে পারে । জামরা জাবার পথ চলতে লাগলাম। নয়নের মুখে কথা নেই, আমার একটা প্রশ্নেয়ও সে ই-না ছাড়া জবাব দেয় না । খানিকটা এগিয়েই একটা বড় গাছতলায় অন্ধকার ছায়ার এসে সে থমকে দাড়াল, বললে,--না দাদাভাই, চোখে দেখে ছেড়ে বাওনা হবে না। বামুন-বোষ্টমের প্রাণ নেওয়ার শোধ আমি দেবো। কি করে শোধ দেবে নয়নদা ? এক ব্যাটাকেও কি ধরতে পারবো না ? তখন দু'জনে মিলে তারেও ঠেড়িয়ে बांब्रtबी ! ঠেডিয়ে মারার জানলে আমি প্রায় আত্মহারা হয়ে উঠলাম। একটা নতুন ধরণের খেলার মত। ওদের সম্বন্ধে কত ভয়ঙ্কর কথাই না শুনেছিলাম ; কিন্তু সব মিছে। নয়না যেতে দিলে না, নইলে আমিই তেড়ে গিয়ে নিশ্চয়ই একটাকে ধরে ফেলতে পারতাম ! বললাম,-তুমি বেশ করে এক ব্যাটাকে ধরে থেকে, আমি একাই ঠেক্তিয়ে মায়বো । কিন্তু আমার ছিপ যদি ভেঙে যায় ? নয়ন পুনরায় হেসে বললে,—ছিপের ঘায়ে মরবে না দাদা, এই লাঠিটা নাও, বলে সে সংগৃহীত পাবড়ায় একগাছা আমার হাতে দিয়ে ৰললে–গঙ্ক নিয়ে এইখানে একটু দাড়াও দাদাভাই, আমি এখুনি দু'এক ব্যাটাকে ধরে জানচি। কিন্তু চেঁচামেচি কাজাকাটি শুনে ভয় পেয়ো নৰেন । । नांः, डश्च नःि । এই ষে হাতে লাঠি রইল । ・さ নয়ন বাকী পাৰজা হুটো কোলে চেপে ধরলে, তার বড় লাঠিটা রইল ডান হাতে, उोच नद्र बांचा cशक बन्नग्न शंद्र cर्षीन शबांधकि क्लि क्रिस्य ब्जन cनश्छिक । woo,