প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (দ্বাদশ সম্ভার).djvu/৬২

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শরৎ-সাহিত্য-সংগ্ৰহ তোমার সেই টাকাটা আমি বছর-খানেক আগে তুলে নিয়ে ব্যান্ধে রেখেছিলাম, ভেবেছিলাম, আমার নিজের কারবারের চেয়ে বরঞ্চ এদের হাতেই ভয়ের সম্ভাবনা কম। এখন দেখচি ঠিকই ভেবেছিলাম। এখন এর ওপরেই ভরসা নতুন-বোঁ, এটা না নিলেই এখন নয়। সবিতা এবার মুখ তুলিয়া চাহিলেন, বলিলেন, না নিলে কি না হবার ভয় আছে ? ' আছে বই কি নতুন-বোঁ—বলা তো যায় না। সবিতা চুপ করিয়া রহিলেন। ব্ৰজবাবু কহিলেন, কি বলে নতুন-বোঁ, চুপ করে রইলে যে ? সবিতা মিনিট-দুই নিরুত্তরে থাকিয়া বলিলেন, আমি আর কি বলবো মেজকর্তা। টাকা তুমিই দিয়েছিলে, তোমার কাজেই যদি যায় তো যাবে। কিন্তু আমারো তো আর কিছু নেই। শুনিয়া ব্ৰজবাবু যেন চক্ষকাইয়া গেলেন। খানিক পরে ধীরে ধীরে বলিলেন, ঠিক কথা নতুন-বোঁ, এ দুঃসাহস করা আমার চলে না। তোমার টাকা আমি তোমাকেই ফিরিয়ে দেবো। কাল একবার আসবে ? যদি আসতে বলে আসবো । আর তোমার গয়নাগুলো ? তুমি কি রাগ করে বলচে মেজকর্তা ? ব্ৰজবাবু সহসা উত্তর দিতে পারলেন না। তাহার চোখের দৃষ্ট বেদনায় মলিন হইয়া উঠিল, তারপরে বলিলেন, নতুন-বোঁ, যার জিনিস তাকে ফিরিয়ে দিতে যাচ্চি আমি রাগ করে—এমন কথা আজ তুমিও তাবতে পারলে ? সবিতা নতমুখে নীরব হইয়া রহিলেন। ব্ৰজবাবু বলিলেন, আমি একটুও রাগ করিনি নতুন-বোঁ, সরল মনেই ফিরিয়ে দিতে চাইচি । তোমার জিনিস তোমার কাছেই থাকৃ, ও ভার বয়ে বেড়াবার আর আমার সামর্থ্য নেই। সবিতা এখনও তেমনি নিৰ্ব্বাক্ হইয়া রহিলেন—কোন জবাবই দিতে পারিলেন না । সন্ধ্যা হয়, ব্ৰজবাবু উঠিয়া দাড়াইলেন, কহিলেন, আজ তা হলে যাই। কাল এমনি সময়ে একবার এসো—আমার অনুরোধ উপেক্ষ কোরো না নতুন-বোঁ । রাখাল তাহাকে প্রণাম করিয়া বলিল, একটি বন্ধুর বিয়ে দিতে কাল রাতের গাড়িতে আমি দিল্লী যাচ্চি কাকাবাবু, ফিরতে বোধ করি আট-দশদিন দেরি হবে। ব্ৰজবাবু বলিলেন, তা হোক, কিন্তু বিয়ে কি কেবল দিয়েই বেড়াবে রাজু, নিজে করবে না ? • ; : (t ર