পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (দ্বিতীয় সম্ভার).djvu/২২৭

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


পল্লী-সমাজ ८कन छTांठोहेब ? আমি ত তোর মায়ের মত রম— · রমা বাধা দিয়া বলিল, মত কেন জ্যাঠাইমা, তুমি ত আমার মা। বিশ্বেশ্বরী ষ্টেট হইয়া বুমার ললাট চুম্বন করিয়া বলিলেন, তবে সত্যি করে বল দেখি মা, তোর কি হয়েছে ? অমুখ করেচে জ্যাঠাইমা । বিশ্বেশ্বরী লক্ষ্য করিলেন, তাহার এমন পাণ্ডুর মুখখানি যেন পলকের জন্য বাঙ হইয়া উঠিল। তখন গভীর স্নেহে তাহার রুক্ষ চুলগুলি একবার নাড়িয়া দিয়া কহিলেন, সে ত এই ফুটে চামড়ার চোখেই দেখতে পাই মা ! যা এতে ধরা যায় না, তেমন যদি কিছু থাকে এ সময়ে মায়ের কাছে লুকোসনে রুমা ! লুকোলে ত অস্থখ সারবে না মা ? জানালার বাইরে প্রভাত-রৌদ্র তখনও প্রখর হইয়া উঠে নাই এবং মৃদু-মন্দ বাতাসে শীতের আভাস দিতেছিল। সেই দিকে চাহিয়া রম চুপ করিয়া রহিল। খানিক পরে কহিল, বড়দা কেমন আছেন জ্যাঠাইমা ? বিশ্বেশ্বরী বলিলেন, ভাল আছে। মাথায় ঘা সারতে এখনও বিলম্ব হবে বটে, কিন্তু পাচ-ছ’দিনের মধ্যে হাসপাতাল থেকে বাড়ি আসতে পারবে। রমার মুখে বেদনার চিহ্ন অনুভব করিয়া বলিলেন, দুঃখ ক’রো না মা, এই তার প্রয়োজন ছিল। এতে তার ভালই হবে, বলিয়া তিনি রমার মুখে বিস্ময়ের আভাস অনুভব করিয়া কহিলেন, ভাবচ, মা হয়ে সস্তানের এত বড় দুর্ঘটনায় এমন কথা কি করে বলচি ? কিন্তু তোমাকে সত্যি বলচি মা, এতে আমি ব্যথা বেশী পেয়েচি, কি আনন্দ বেশী পেয়েচি তা আমি বলতে পারিনে। কেন না, আমি জানি যারা অধৰ্ম্মকে ভয় করে না, লজ্জার ভয় যাদের নেই, প্রাণের ভয়টা যদি না তাদের তেমনি বেশী থাকে, তা হলে সংসার ছায়খার হয়ে যায়। তাই কেবলই মনে হয় রুমা, এই কলুর ছেলে বেণীর যে মঙ্গল করে দিয়ে গেল, পৃথিবীতে কোন আত্মীয়-বন্ধুই ওর সে ভাল করতে পারত না । কয়লাকে ধুয়ে তার রঙ বদলানো যায় নাম, তাকে আগুনে পোড়াতে হয় । রম৷ জিজ্ঞাসা করিল, বাড়িতে তখন কি কেউ ছিল না ? বিশ্বেশ্বরী কহিলেন, থাকবে না কেন, সবাই ছিল। কিন্তু সে ত খামোক মেরে বসেনি, নিজে জেলে যাবে বলে ঠিক করে তবে তেল বেচতে এসেছিল। তার নিজের রাগ একটুও ছিল না মা, তাই তার বাকের একঘায়েই বেণী যখন অজ্ঞান হয়ে পড়ে গেল, তখন চুপ করে দাড়িয়ে রইল—আর আঘাত করলে না। তা ছাড়া ૨૨ છે