প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (দ্বিতীয় সম্ভার).djvu/৩১২

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শরৎ-সাহিত্য-সংগ্ৰহ এক মুহূর্ত থাকিতে পারে ? তবে একি অদ্ভূত কাণ্ড সকাল হইতে করিয়া ফিরিতেছি ? এ-সব চোখের সামনে এমনই স্বম্পষ্ট হইয়া দেখা দিল যে, তাহার সমস্ত দুশ্চিস্তা একেবারে ধুইয়া মুছিয়া গেল, সে কাদা ঠেলিয়া, মাঠ ভাঙিয়া উৰ্দ্ধশ্বাসে ঘরের দিকে ছুটিল। বেলা যখন যায় যায়, পশ্চিমাকাশে সুর্য্যদেব ক্ষণকালের জন্য মেঘের ফঁাকে রক্তমূখ বাহিত্ব করিয়াছেন, সে তখন বাডি ঢুকিয়া সোজা রান্নাঘরে আসিয়া দাড়াইল । মেঝের উপর তখনও আসন পাতা, তখনও গতবাত্রির বাড়া ভাত শুকাইয়া পড়িয়া আছে—আরশোলা ইদুরে ছুটাছুটি করিতেছে—কেহ মুক্ত করে নাচ । সে আঁধারে আঁধারে ঠাহর করে নাই ; এখন ভাতের চেহারা দেখিয়াই বুঝিল, ইহাষ্ট তুলসীর মোট চাল, ইহাই অভূক্ত স্বামীর জন্য বিবাজ জরে কাপিতে কঁাপিতে অন্ধকাবে লুকাইয়া ভিক্ষা করিয়া জানিয়াছিল, টঙ্গরষ্ট জন্য সে মার খাইযাছে, অশ্রাব্য কটু কথা শুনিয়া লজ্জায় ধিক্কারে বর্ষার দুরন্ত বীতে গৃহত্যাগ করিয়াছে। নীলাম্বর সেইখানে বসিয়া পডিয়া দুই হাতে মুখ ঢাকিয়া মেয়েমানুষের মত গভীর অর্জনাদ করিয়া কাদিয়া উঠিল । সে যখন এখনও ফিরিস আসে নাই, তখন আর আসিবাক কথা তারিতে পারিল না । সে স্ত্রীকে চিনিত । সে যে কত অভিমানী, প্রাণ গেলেও সে যে অপরেব ধরে আশ্ৰয লইতে গিয়া এই কলঙ্ক প্রকাশ করিতে চাহিবে না, তাহ নি:সংশয়ে বুঝিতেছিল বলিযাই তাহার বুকের ভিতরে এত সত্বপ এমন হাহাকার উঠিল। তারপর উপুড় হইয়া পড়িয়া দুই বহু সম্মুখে প্রসারিত করিয়। দিয়া অবিশ্রাম আবুলি করিতে লাগিল, এ আমি সইতে পারব না বিরাজ, তুষ্ট অয় । সন্ধ্য হইল, এ-বাড়িতে কেই দীপ জালিল না , রাত্রি হইল, রান্নাঘরে কেহ রাধিতে প্রবেশ করিল না, কাদিয়া কাদিয়া তাহাব চোখ মুখ ফুলিযা গেল, কেহ মুছাইয়া দিল না। হুদিনের উপবাসীকে কেহ খাইতে ডাকিল না। বাহরে চাপিয বৃষ্টি আসিল, ঘনান্ধকার বিদীর্ণ করিয়া বিদ্যুতের শিখা তাহাব মুদ্রত চক্ষুর ভ এর পৰ্য্যন্ত উদ্ভাসিত করিয়া দুৰ্য্যোগের বার্ত। জানহয়! যাইতে লাগিল, তথাপি সে উঠিয় বসিল না, চোখ মোগল না, একভাবে মুখ গুজিয়া গো গো করিতে লাগিল । যখন তাহার ঘুম ভাঙ্গিল, তখন সকাল। বাহিরের দিকে অস্পষ্ট কোলাহল শুনিয়া ছুটিয়া আসিয়া দেখিল, দরজায় একটা গো-শকট দাড়াইয়া আছে, ব্যস্ত হইয়। সমূখে দাড়াইতেই ছোটবোঁ ঘোমটা টানিয়া দিয়া নামিয়া পড়িল । অগ্রজের প্রতি একটা বক্র কটাক্ষ করিয়া পীতাম্বর ওধারে সরিয়া গেল। ছোটবোঁ কাছে আসয়া ভূমিষ্ট হইয়া প্ৰণাম করিতেই নীলাম্বর অফুটম্বরে কি-একটা আশীৰ্ব্বাদ উচ্চারণ \»• ©