প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (দ্বিতীয় সম্ভার).djvu/৩৪১

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


=ान्य्-न्विश्वान्र $o এই আখ্যাম্বিকার নায়ক প্রযুক্ত শৈলেশ্বর ঘোষাল পত্নীবিরোগাভে পুনশ্চ সংসার পাতিবার স্বচনাতেই ৰদি না বন্ধু-মহলে একটু বিশেষ রকমের চক্ষু লজ্জায় পড়িয়া বাইতেন ত এই ছোট গল্পের রূপ এবং রঙ বদলাইয়া ষে কোথায় কি দাড়াইত, তাহা আম্বাজ করাও শক্ত। সুতরাং ভূমিকায় সেই বিবরণটুকু বলা আবশ্বক। শৈলেশ্বর কলিকাতার একটা নামজাদ কলেজের দর্শনের অধ্যাপক—বিলাতি ডিগ্রী আছে। বেণ্ডন আট শত। বয়স বত্রিশ। মাস-পাঁচেক পূৰ্ব্বে বছর-নরেকের একটি ছেলে রাধিয়া স্ত্রী মারা গিয়াছে। পুরুষানুক্ৰমে কলিকাতার পটলডাঙ্গায় বাস। বাড়ির মধ্যে ওই ছেলেটি ছাড়া, বেহারা-বাবৃষ্টি, সহিল-কোচম্যান প্রভৃতিতে প্রায় সাতআটজন চাকর । ধরিতে গেলে সংসারটা এরকম এইসব চাকরদের লইয়াই । প্রথমে বিবাহ করিবার জার ইচ্ছাই ছিল না। ইহা স্বাভাবিক এখন ইচ্ছা হইয়াছে। ইহাতেও নূতনত্ব নাই। সম্প্রতি জানা গিয়াছে, ভবানীপুরের ভূপেন বাড়ুজ্যের মেজ মেয়ে ম্যাট্রিকুলেশন পাশ করিয়াছে এবং সে দেখিতে ভাল। এরূপ কৌতূহলও সম্পূর্ণ বিশেষত্বহীন, তথাপি সেদিন সন্ধ্যাকালে শৈলেশ্বরেরই বৈঠকখানায় চায়ের বৈঠকে এই আলোচনাই উঠিয়া পড়িল। তাহার বন্ধু-সমাজের ঠিক ভিতরের না হইয়াও একজন আল্প-বেতনের ইস্কুল-পণ্ডিত ছিল। চা-রসের পিপাসাটা তাহার কোন বড় বেতনের প্রফেসারের চেয়েই নূ্যন ছিল না। পাগলাটে গোছের বলিয়া প্রফেসাররা তাহাকে দিগগজ বলিয়া ডাকিতেন। সে হিসাব করিয়াও কথা বলিত না, তাহার দায়িত্বও গ্রহণ করিত না। দিগগজ নিজে ইংরাজী জানিত না, মেয়েমাজুযে একজামিন পাশ করিয়াছে শুনিলে রাগে তাহার সর্বাঙ্গ জলিয়া যাইত। ভূপেনৰাৰ্বর কস্তার প্রসঙ্গে সে হঠাৎ বলিয়া উঠিল, একটা বেীকে তাড়ালেন, একটা বোঁকে খেলেন, আৰার ৰিয়ে ! সংসার করতেই যদি হয় ত উমেশ ভট্চাৰ্যির মেয়ে দোষটা করলে कि छबि ? षब्र कब्राउ एब ७ छांटक निदब पद्र कक्रन । φος