প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (দ্বিতীয় সম্ভার).djvu/৩৪৮

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শরৎসাহিত্য-সংগ্ৰহ সোমেন রহস্যটা এক কথার স্বাস করিল না, বলিল,ভূমি বল ত বাবা, ও কি ? বাবা বলিলেন, আমি কি করে জানৰ ? - ছেলে হাততালি দিয়া মহা জানন্দ্ৰে কছিল, আকাশ-প্রীপ। আকাশ-প্রদীপ ! আকাশ-প্রদীপে কি হবে ? ইহার অদ্ভুত বিবরণ সোমেন আজ সকালেই শিথিয়াছে, কছিল, আজ সংক্রাভি, কাল সন্ধ্যাবেলায় উই উচুতে বাঁশ বেঁধে টাঙাতে হবে বাবা । মা বলেন, আমার ঠাকুরক্ষার ধারা স্বর্গে আছেন, তাদের আলো দেখাতে হয়। তারা আশীৰ্ব্বাদ করেন । শৈলেশের মেজাজ গরম হইয়াই ছিল, টান মারিয়া পা দিয়া সমস্ত কেলিয়া ধমক স্থিা কছিল, আশীৰ্ব্বাদ করেন। যত সমস্ত কুসংস্কার যা পড়গে যা বলছি। তাহার এত সাধের আকাশ-প্রদীপ ছত্রাকার হইয়া পড়ায় লোমেন কাজ-কাজ হুইয়া উঠিল। উপরে কোথা হইতে মিষ্ট-কণ্ঠের ডাক আসিল, বাবা সোমেন, কাল ৰাজার থেকে আমি আরও ভাল একটা আকাশ-প্রদীপ তোমাকে কিনে আনিয়ে দেব, তুমি আমার কাছে এস। সোমেন চোখ স্বছিতে মুছিতে উপরে চলিয়া গেল। শৈলেশ কোনদিকে দৃষ্টিপাত না করিয়া গম্ভীর বিরক্তযুখে তাহার পড়িবার ঘরে গিয়া প্রবেশ করিল। পরক্ষণেই ছোট্ট ঘণ্টার শব্দ হইল—টুন্‌ টুন্‌ টুল্‌ টুন্‌, কেহ সাড়া দিল না। আবদুল । আবদুল জাসিল না। গিরিধারী ? গিরিধারী ? গিরিধারীর পরিবর্তে বাঙালী চাকর গোকুল গিয়া পর্দার ফাক দিয়া মূখ বাড়াইয়া কছিল, আজ্ঞে – শৈলেশ ভয়ানক ধমক দিয়া উঠিল, আজ্ঞে ? ব্যাটারা মরেচিস্ ? গোকুল বলিল, আজ্ঞে না। আজ্ঞে না ? আবদুল কই ? গোকুল কহিল, মা তাকে ছুটি দিয়েছেন, সে বাড়ি গেছে। ছুটি দিয়েচেন । বাড়ি গেছে। গিরিধারী কোৰা গেল ? গোকুল জানাইল, সেও ছুটি পাইয়া দেশে চলিয়া গেছে। শৈলেশ গুম্ভিত হইয়া কছিল, বাড়িতে কি লোকজন কেউ.আর নেই না কি ? গোকুল খাড় নাড়িয়া বলিল, আঙ্গে জার সবাই আছে। ठहे वा चांद्रह ¢कन ? बी इब्र श्শৈলেশ্বর নিজেই তখন জুতা খুলিল, কোট ধুলিয়া টেবিলের উপরেই জয় করিা 哈镇