প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (দ্বিতীয় সম্ভার).djvu/৩৮০

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শরৎ-সাহিত্য-সংগ্ৰহ কারণ পৰ্যন্তও যখন সে জিজ্ঞাসাও করিল না, তখন অবিনাশ নিজেই কথা কছিল। বলিল, এই আড়াইটার গাড়িতেই ত দিজি মেতে চাচ্চেন । শৈলেশ মুখ তুলিয়া কহিল, চাচ্চেন ? কেন, আমার পক্ষ থেকে কি তিনি বাধা পাবার আশঙ্কা করেচেন ? অবিনাশ ছেলেমানুষ, সে হঠাৎ কি জবাব দিবে ভাবিয়া না পাইয়া শুধু কহিল, আজ্ঞে না । দরজার বাহিরে চুড়ির শব্দ পাইয়া শৈলেশের মন আরও বাকিয়া গেল। বলিল, না, আমার তরফ থেকে তার যাবার কোন নিষেধ নেই। অবিনাশ নীরব হইয়া রহিল। শৈলেশ প্রশ্ন করিল, তোমার দাদার আসবার কথা শুনেছিলুম, তিনি এলেন না কেন ? অবিনাশ সঙ্কুচিতভাবে আস্তে আস্তে বলিল, তার আমাকে পাঠাবারও তেমন ইচ্ছে ছিল না। কেন ? অবিনাশ চুপ করিয়া রহিল। শৈলেশ বলিল, তুমি ছেলেমাস্থ্য, তোমাকে সব কথা বলাও যায় না, বলে লাভও নেই। তবে, তোমার দাদা যদি কখনো জানতে চান ত ব’লে যে, এ ব্যাপারে উধার দোষ নেই, দোষ কিংবা ভুল যদি কারও হয়ে থাকে ত সে আমার । তাকে আনতে পাঠানোই আমার উচিত হয়নি। একটু স্থির থাকিয়া পুনশ্চ কহিতে লাগিল, মনে হ’ত বাবা অন্যায় করে গেছেন। দীর্ঘকাল পরে অবস্থাবশে যখন সময় এল, ভাবলুম এবার তার প্রতিকার হবে। তোমার দিদি এলেন বটে, কিন্তু এক দোষ শত দোষ হয়ে দেখা দিল । ইহার আর উত্তর কি! অবিনাশ মৌন হইয়া রহিল, এমনি সময় সহগ। জন্য দিকের দরজা ঠেলিয়া ঘরে ক্ষেত্রমোহন প্রবেশ করিলেন। শৈলেশ চাহিয়া দেখিল, কিন্তু থামিতে পারিল না। কঠিন বাক্যের স্বভাবই এই যে, সে নিজের ভারেই নিজে কঠিনতর হইয়া উঠিতে থাকে। উষা অন্তরালে দাড়াইয়া ; অভ্রান্ত লক্ষ্যে তাহাকে নিরস্তর বিদ্ধ করিবার নির্দয় উত্তেজনায় জ্ঞানশূন্ত হইয়া শৈলেশ বলিতে লাগিল, তোমার ভগিনীকে একদিন বিবাহ করেছিলুম সত্য, কিন্তু সহধৰ্ম্মিণী তাকে কোনমতেই বলা চলে না। আমাদের শিক্ষাদীক্ষা, সমাজ, ধৰ্ম্ম কিছুই এক নয়— জোর করে তাকে গৃহে রাখতে নিজের বাড়িটাকে যদি স্মৃতিশাস্ত্রের টোল বানিয়েও তুলি, কিন্তু আমার একমাত্র ছোট বোন দুঃখে ক্ষোভে পর হয়ে যায়, একটিমাত্র ছেলে কুশিক্ষায় কু-সৃষ্টাস্তে পরিপূর্ণ হয়ে ওঠে এ ত কোনক্রমেই আমি হতে দিতে नॉब्रिएन। उएव उँीब्र कांtइ जामि ७रे जाछ क्लउछ cष ग्रंथ कूर आभि वा סוסי