পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (দ্বিতীয় সম্ভার).djvu/৩৮৪

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শরৎ-সাহিত্য-সংগ্ৰহ উষা কছিল, বেশ ! আমি বলছিলুম বৌদি হয়ত এই মাসেই ফিরে আসতে পারেন। তোমার মনে হয় না দাদা ? ভগিনীর প্রশ্নটাকে এড়াইয়া গিয়া ক্ষেত্রমোহন কহিলেন, যদি ধরাই যায় তিনি আলবেন না—বহুকাল তার না এসেই কাটছিল, বাকীটাও না এসে কাটতে পারে, কিন্তু তাই বলে কি অন্ত উপায় নেই ? আমি সেই কথাই বলচি । উমা ঠিক বুঝিল না, সে নিরুত্তরে চাহিয়া রহিল। শৈলেশ তাহার বিস্মিত মুখের প্রতি দৃষ্টিপাত করিয়া কহিল, তার ফিরে আসা আমি সঙ্গত মনে করিনে উমা । তিনি আমার বিবাহিতা স্ত্রী। কিন্তু সহধৰ্ম্মিণী তাকে আমি बलएड श्रृंॉब्रिटन । উষার বিরুদ্ধে এই অভদ্র ইঞ্জিতে ক্ষেত্রমোহন মনে মনে বিরক্ত হইলেন। কছিলেন, ধৰ্ম্মই নেই জামাদের, তা আবার সহধৰ্ম্মিণী । ওসব উচ্চাঙ্গের আলোচনায় কাজ নেই ভাই, আমি সংসার চালাবার মত একটা ব্যবস্থার প্রস্তাব করচি । শৈলেশ গভীর বিস্ময়ে কহিল, ধৰ্ম্ম নেই আমাদের ? ক্ষেত্রমোহন বলিলেন, কোনৃখানে আছে দেখাও । রোজগার করি, থাই-দাই থাকি, ব্যস্। জামাদের সহধৰ্ম্মিণী না হলেও চলে। তখনকার লোকের ছিন্ন শ্ৰাদ্ধ-শাস্তি, পূজো-পাঠ, ব্রত-নিয়ম-ধৰ্ম্ম নিয়েই তারা মেতে থাকত, তাদের ছিল সহধৰ্ম্মিণীর প্রয়োজন। আমাদের অত বায়নাক্কা কিসের ? শৈলেশ মাহত হইয়া কহিল, সহধৰ্ম্মিণী তাই ? শ্রদ্ধ-শাস্তি, পূজো-পাঠ— কথা তাহার শেষ হইল না, ক্ষেত্রমোহন বলিয়া উঠিলেন, তাই ভাই তাই, তা ছাড়া আর কিছু নয়। তুমিও হিছ, আমিও হিছ—without offence—পূজোও করিনে, মন্দিরেও যাইনে, কেষ্ট-বিটুকে ধরে খোচা-খুঁচি করার কু-অভ্যাসও আমাদের নেই— মেয়েরা ত আরও harmless, আমরা সহজ মানুষ-লোক ভাল। কি হবে ভাই আমাদের অত বড় পাচ-সাতটা অক্ষরের সহধৰ্ম্মিণী নিয়ে, ছোট্ট একটু স্ত্রী হলেই আমাদের খাসা চলে যাবে। তুমি ভাই দয়া করে একটু রাঙ্গী হও—ভবানীপুরের ওরা ভারী ধরেছেন—তোমার বোনটিরও ভয়ানক ইচ্ছে, কথাটা রাখো শৈলেশ । শৈলেশ মুখ অন্ধকার করিয়া উঠিয়া দাড়াইয়া কহিল, তুমি আমাকে বিদ্রুপ কোরচ, ক্ষেত্র । ব্যাপার দেখিয়া উমা শশব্যস্ত হইয়া উঠিল। ক্ষেত্রমোহন ভীত হইয়া বার বার করিয়া বলিতে লাগিলেন, না ভাই শৈলেশ, না। যদি ও রকম কিছু করেও ধাৰি, তোমার চেয়ে আমাকেই আমি বেশী করেচি। শৈলেশ প্রতিবাদ করিল না, কেবল স্তন্ধ হইয়া দাড়াইয়া ব্লছিল। שףס