প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (নবম সম্ভার).djvu/১৩১

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শেধ প্রশ্ন কমল বলিল, আমার পার না-পারার ওপর যদি নির্ভর করতেন অজিতবাবু, তখন এর জবাব দিতুম। পরের জিনিস আত্মসাৎ করার সাহস আপনার নেই। চলুন, গাড়ী ঘুরিয়ে নিয়ে আমাকে বাসায় পৌছে দেবেন। ফিরিবার পথে অজিত ধীরে ধীরে জিজ্ঞাসা করিল, পরের জিনিস আত্মসাৎ করার সাহসটা কি খুব বড় জিনিস বলে তোমার ধারণা ? কমল কহিল, বড়-ছোটর কথা বলিনি। এ সাহস আপনার নেই তাই শুধু বলেচি। না নেই এবং সেজন্য লজ্জা বোধ করিনে। বলিয়া অজিত একটু খামিয়া কহিল, বরঞ্চ থাকলেই লজ্জা বোধ করতাম। আর আমার বিশ্বাস সমস্ত ভদ্রব্যক্তিই এই কথায় সায় দেবেন। কমল কহিল, সায় দেওয়া সহজ । তাতে বাহবা পাওয়া যায়। শুধুই বাহব ? তার বেশি নয়? শিক্ষিত ভদ্ৰ-মন বলে কি কখনো কিছু দেখোনি ? যদি দেখেও থাকি, সে আলোচনা আর একদিন করব যদি সময় আসে, আজি নয়। বলিয়া সে একমুহূৰ্ত্ত মৌন থাকিয়া বলিল, আপনার তর্কের উত্তরে আর কেউ হলে বিক্রপ করে বলত যে, কমলকে আত্মসাৎ করবার চেষ্টায় ত ভদ্ৰ-মনের সঙ্কোচে বাধেনি ? আমি কিন্তু তা বলতে পারব না, কারণ কমল কারও সম্পত্তি নয়। সে কেবল তার নিজেরই, আর কারও নয়। কোনদিন বোধ করি হতেও পার না ? এ ত ভবিষ্যতের কথা অজিতবাবু, আজ কি করে এর জবাব দেব ? জবাব বোধ হয় কোনদিনই দিতে পারবে না । মনে হয়, এই জন্তই শিবনাথের এতবড় নিৰ্ম্মমতাও তোমাকে বাজেনি। অত্যন্ত সহজেই সে তুমি ঝেড়ে ফেলে দিয়েচ । বলিয়া সে নিশ্বাস ফেলিল । মোটরের আলোকে দেখা গেল কয়েকখানা গরুর গাড়ী। পাশেই বোধ হয় গ্রাম, কৃষকেরা যেমন-তেমনভাবে গাড়ীগুলা রাস্তায় ফেলিয়া গরু লইয়া ঘরে গিয়াছে । অজিত সাবধানে এই স্থানটা পার হইয়া কহিল, কমল, তোমাকে বোঝা শক্ত। কমল হাসিয়া কহিল, শক্ত কিসে? ঠিক ত বুঝেছিলেন পথ ভুললেই আমাকে ভুলিয়ে নিয়ে যাওয়া যায়। হয়ত সে বোঝা আমার ভুল । কমল পুনশ্চ হাসিয়া কহিল, পথ ভোলা ভুল, আমাকে ভোলাবার চেষ্টা ভুল, আবার নিজেরও ভুল ? এ ভুলের বোঝা আপনার সংশোধন হবে কবে ? অজিত છે૨છે