প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (নবম সম্ভার).djvu/১৬১

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শেষ প্রশ্ন কমল বিছানা হইতে উঠিয়া আসিয়া দূরে একটা চৌকিতে বসিল, কহিল, আমার নিজের জন্ত আর দুঃখ হয় না, হয় আর একজনের জন্য । কিন্তু আজ তোমার জন্যও দুঃখ হচ্চে শিবনাথবাবু। অনেকদিনের পরে আবার সে এই প্রথম তাহাকে নাম ধরিয়া ডাকিল। কহিল, প্তাখ, নিছক বঞ্চনাকেই মূলধন করে সংসারে বাণিজ্য করা যায় না । আমার সঙ্গে হয়ত তোমার আর দেখা হবে না, কিন্তু আমাকে তোমার মনে পড়বে। যা হবার তা ত হয়ে গেছে, সে আর ফিরবে না, কিন্তু ভবিষ্যতে জীবনটাকে আর একদিক থেকে দেখবার চেষ্টা ক’রো, হয়ত সুখী হতেও পারবে। লক্ষ্মীটি, ভুলো না । তোমার ভাল হোক, ভূমি ভাল থাকে, এ আমি আজও সত্যি-সত্যিই চাই । কমল কষ্ট্রে অশ্র সংবরণ করিল। আগুবাবু যে কেন তাহাকে সরাইয়া দিলেন, কি যে তাহার যথার্থ হেতু, এত কথার পরেও সে এতবড় আঘাত শিবনাথকে দিতে পারিল না । বাহিরে পা-গাড়ীর ঘণ্টার শব্দ শুনা গেল । শিবনাথ কোন কথা না কহিয়া পুনৰ্ব্বার পাশ ফিরিয়া শুইল । 歸 ঘরে ঢুকিয়া রাজেন চাপা-গলায় কহিল, এই যে সত্যিই জেগে আছেন দেখচি ! রুগী কেমন ? ওষুধ-টযুদ্ধ আর খাওয়ালেন ? কমল ঘাড় নাড়িয়া বলিল, না, আর কিছু খাওয়াইনি। রাজেন অঙ্গুলি-সঙ্কেতে কহিল, চুপ । ঘুম ভেঙ্গে যাবে, সেটা ভাল না । না । কিন্তু তোমার মুচীরা করলে কি ? তারা লোক ভাল, কথা রেখেচে । আমার যাবার আগেই যমরাজের মহিষ এসে আত্মা দুটো নিয়ে গেছে, সকালে ধড় দুটো তাদের মিউনিসিপ্যালিটির মহিষের হাবল করে দিতে পারলেই খালাস । আরও গোটা-অষ্ট্রেক গুযচে, কাল একবার দেখিয়ে আনব। আশা করি প্রচুর জ্ঞানলাভ করবেন। কিন্তু আরাম-চৌকির ওপর আমার কম্বলের বিছানা কই ? ভুলে গেছেন ? কমল বিছানা পাতিয়া দিল । আঃ—বাচলাম, বলিয়া দীর্ঘশ্বাস ফেলিয়া হাতলের উপর দুই পা ছড়াইয়া দিয়া রাজেন গুইয়া পড়িল । কহিল, ছুটো-ছুটিতে ধেমে গেছি —একটা পাখা-টাখা আছে নাকি ? . কমল পাখা হাতে করিয়া চৌকিটা তাহার শিয়রের কাছে টানিয়া আনিয়া বলিল, আমি বাতাস করচি, তুমি ঘুমোও । রুগীর জন্ত দুশ্চিন্তার কারণ নেই, তিনি ভাল আছেন । বাঃ—সবদিকেই সুখবর। বলিয়া সে চোখ বুজিল । X(t).