প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (নবম সম্ভার).djvu/২০৮

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শরৎ-সাহিত্য-সংগ্ৰহ হয়ে আসচে। আমাদের নিন্দে-মুখ্যাতিকে অবজ্ঞা করার সাহস, যে তুমি কোথায় পাও, তাও বুঝতে পরিচি । কমল কৃত্রিম বিস্ময়ে মুখ তুলিয়া কহিল, ব্যাপার কি অজিতবাবু, কথাগুলো যে অনেকটা জ্ঞানবানের মত শোনাচ্চে ? অজিত কহিল, আচ্ছ কমল, সত্যি বলে আমার মতামতও কি অন্য সকলের মতো তোমার কাছে এমনি তুচ্ছ ? কিন্তু এ-কথা জেনে আপনার হবে কি? * কমল, নিজেকে শক্তিমান বলে আমি তোমার কাছে কোনদিন অহঙ্কার করিনি। বাস্তবিক ভিতরে ভিতরে আমি যেমন দুৰ্ব্বল, তেমনি অসহায় । কোন কিছু জোর করে করার সামর্থ্য নেই আমার । কমল হাসিয়া কহিল, সে আমি আপনার নিজের চেয়েও ঢের বেশি জানি । অজিত কহিল, আমার কি মনে হয় জানো ? মনে হয় তোমাকে পাওয়াও আমার যেমন সহজ, হারানও তেমনি সহজ । কমল বলিল, আমি তাও জানি । অজিত নিজের মনে মাথা নাড়িয়া বলিল, সেই ত। তোমাকে আজ পাওয়াই ত শুধু নয়, একদিন যদি এমনি করে হারাতেই হয় তখন কি হবে ? , কমল শান্ত-কণ্ঠে কহিল, কিছুই হবে না, সেদিন হারানও ঠিক এমনি সহজ হয়ে যাবে। যতদিন কাছে থাকবো আপনাকে সেই বিপ্তেই দিয়ে যাবো । অজিত অন্তরে চমকিয়া উঠিল। বলিল, বিলেতে থাকতে দেখেচি, ওরা কত সহজে, কত সামান্য কারণেই না চিরদিনের মত বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। মনে ভাবি, কিছুই কি বাজে না ? অার এই যদি তাদের ভালবাসার পরিচয়, তারা সভ্যতার গৰ্ব্ব করে কিসের ? কমল কহিল, অজিতবাবু, বাইরে থেকে খবরের কাগজে যত সহজ দেখেচেন, হয়ত তত সহজ নয়, কিন্তু তবুও কামনা করি নর-নারীর এই পরিচয়ই যেন একদিন জগতে আলো-বাতাসের মত সহজ হয়ে যায়। 劇 • “ অজিত নিঃশবে তাহার মুখের প্রতি চাহিয়া রহিল, কথা কহিল না। তার পর ধীরে ধীরে অন্যদিকে মুখ ফিরিয়া গুইতেই তাঁহার কি কারণে কোথা দিয়া চোখে জল আসিয়া পড়িল । • , , • - - - - হয়ত কমল বুঝিতে পারিল। উঠিয়া আসিয়া শয্যার একপ্রান্তে বসিয়া তাহার মাথার মধ্যে হাত বুলাইয়া দিতে লাগিল, কিন্তু সাত্বনার একটা কথাও উচ্চারণ করিল না।

  • ščr. .