প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (নবম সম্ভার).djvu/২৬৬

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শরৎ-সাহিত্য-সংগ্ৰহ জাণ্ডবাৰু একমুহূর্তে নিজেকে সংবরণ করিয়া বলিলেন, খুব সম্ভব মিনিট দুই-ভিন। এ অবস্থায় তাকে কি যে বলব আমি ভেবে পাবার জাগেই নীলিম তীরের মত উঠে দাড়াল, একবার চাইলেও না, ঘর থেকে বার হয়ে গেল। না বললে লে একটা কথা, না বললাম আমি । তার পরে আর দেখা হয়নি । কমল জিজ্ঞাসা করিল, এ কি আপনি আগে বুঝতে পারেননি ? আপ্তবাবু বলিলেন, না । স্বপ্নেও ভাবিনি। আর কেউ হলে সন্দেহ হ’তো এ শুধু ছলনা, শুধু স্বার্থ। কিন্তু এর সম্বন্ধে এমন কথা ভাবাও অপরাধ। এ কি আশ্চৰ্য্য মেয়েদের মন ! এই রোগাতুর জীর্ণ দেহ, এই অক্ষম অবসন্ন চিত্ত, এই জীবনের অপরাহ্লবেলায় জীবনের দাম যার কাণাকড়িও নয়, তারও প্রতি যে সুন্দরী যুবতীর মন আকৃষ্ট হতে পারে, এতবড় বিস্ময় জগতে কি আছে! অথচ এ সত্য, এর এতটুকুও মিথ্যে নয়। এই বলিয়া এই সদাচারী প্রৌঢ় মানুষটি ক্ষোভে বেদনায় ও অকপট লজ্জায় নিশ্বাস ফেলিয়া নীরব হইলেন। কিছুক্ষণ এইভাবে থাকিয়া পুনশ্চ কহিলেন, কিন্তু আমি নিশ্চয় জানি এই বুদ্ধিমতী নারী আমার কাছে কিছুই প্রত্যাশা করে না। ও শুধু চায় আমাকে যত্ন করতে, শুধু চায় সেবার অভাবে জীবনের নিঃসঙ্গ বাকি দিন কটা যেন না আমার দুঃখে শেষ হয়। শুধু দয়া আর অকৃত্রিম করুণা। কমল চুপ করিয়া আছে দেখিয়া তিনি বলিতে লাগিলেন, বেল বিবাহ-বিচ্ছেদের যখন মামলা আনে আমি সন্মতি দিয়েছিলাম। কথায় কথায় সেদিন এই প্রসঙ্গ উঠে পড়ায় নীলিম অত্যন্ত রাগ করেছিল। তার পর থেকে বেলাকে ও যেন কিছুতেই সহ করতে পারছিল না। নিজের স্বামীকে এমনি করে সর্বসাধারণের কাছে লজ্জিত অপদস্থ করে এই প্রতিহিংসার ব্যাপারটা নীলিম কিছুতেই অস্তরে মেনে নিতে পারলে না। ও বলে, র্তাকে ত্যাগ করাটাই তো বড় নয়, তাকে ফিরে পাবার সাধনাই স্ত্রীর পরম সার্থকতা । আমাদের শোধ নেওয়াতেই স্ত্রীর সত্যকার মর্য্যাদা নষ্ট্র হয়, নইলে ও তো কষ্টিপাথর, ওতে যাচাই করেই ভালবাসার মূল্য ধাৰ্য্য হয়। আর এ কেমনতর আত্মসন্মান-জ্ঞান ? যাকে অসম্মানে দূর করেচি, তারই কাছে হাত পেতে নেওয়া নিজের খাওয়া-পরার দাম ? কেন, গলায় দেবার দড়ি জুটলো না ? গুনে আমি ভাবতাম নীলিমার এ অন্যায়, এ বাড়াবাড়ি । আজি ভাবি, ভালবাসায় পারে না কি ? রূপ, যৌবন, সন্মান,সম্পদ কিছুই নয় মা, ক্ষমাটাই ওর সত্যিকার প্রাণ। ও যেখানে নেই, সেখানে ও শুধু বিড়ম্বন। সেখানেই ওঠে রূপ-যৌবনের বিচার-বিতর্ক, সেখানেই আসে আত্মমৰ্য্যাদা-বোধের টগ-অৰ-ওয়ার। 晶 কমল তাহার মুখের পানে চাহিয়া চুপ করিয়া রছিল। Ꭶ☾&