প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (নবম সম্ভার).djvu/৩২০

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শরৎসাহিত্য-সংগ্ৰহ মনে করলুম, যাই, কুলুঙ্গি থেকে বইখান এনে একটু পড়ি। আজকাল এই বইখানা হয়েছিল আমার অনেক দুঃখের সাত্বন । কিন্তু উঠতে গিয়ে হঠাৎ আঁচলে * একটা টান পড়তেই ফিরে চেয়ে নিজের চক্ষুকে যেন বিশ্বাস হ’ল না। দেখি, আমার আঁচল ধরে জানালার বাইরে দাড়িয়ে নরেন। একটু হলেই চেচিয়ে ফেলেছিলুম আর কি ! সে কখন এসেচে, কতক্ষণ এভাবে দাড়িয়ে আছে, কিছুই জানতে পারিনি। কিন্তু কি করে যে সেদিন আপনাকে সামলে ফেলেছিলুম, আমি আজও ভেবে পাইনে। ফিরে দাড়িয়ে জিজ্ঞাসা করলুম, এখানে এসেচ কেন ? শিকার করতে ? নরেন বললে, ব’স বলচি । আমি জানালার ওপর বসে পড়ে বললুম, শিকার করতে যাওনি কেন ? নরেন বললে, ঘনশ্বামবাবুর হুকুম পাইনি। যাবার সময় বলে গেলেন, আমরা বৈষ্ণব, আমাদের বাড়ি থেকে জীবহত্যা করা নিষেধ । চক্ষের নিমিষে স্বামিগৰ্ব্বে আমার বুকখানা ফুলে উঠল। তিনি কোন কর্তব্য ভোলেন না, সেদিকে তার একবিন্দু দুৰ্ব্বলতা নেই। মনে মনে ভাবলুম, এ লোকটা দেখে যাক, আমার স্বামী কত বড়। বললুম, তা হলে বাড়ি ফিরে গেলে না কেন ? সে লোকটা গরাদের ফাক দিয়ে থপ, করে আমার হাতটা চেপে ধরে বললে, সদ্ধ, টাইফয়েড জরে মরতে মরতে বেঁচে উঠে যখন শুনলুম তুমি পরের হয়েচ, আর আমার নেই, তখন বার বার করে বললুম, ভগবান, আমাকে বাচালে কেন ? তোমার কাছে আমি এইটুকু বয়সের মধ্যে এমন কি পাপ করেচি, যার শাস্তি দেবার জন্তে আমাকে বঁচিয়ে রাখলে ? 骨 বললুম, তুমি ভগবান মানে ? নরেন খতমত খেয়ে বলতে লাগল, ন হ্যা, ন, মানিনে, কিন্তু সে-সময়ে কি জানো ! থাক্ গে, তার পরে ? 聽 নরেন বলে উঠল, উঃ, সে আমার কি দিন, যেদিন শুনলুম, তুমি আমারই আছ, শুধু নামেই অন্তের, নইলে, আমারই চিরকাল, শুধু আমারই । আজও একদিনের জন্তে আর কারও শয্যায় রাত্রি— i ছি, ছি, চুপ কর। কিন্তু কে তোমাকে এ-খবর দিলে ? কার কাছে শুনলে ? তোমাদের যে দাসী তিন-চারদিন হ’ল বাড়ি যাবার নাম করে চলে গেছে, যে— Woo.