প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (নবম সম্ভার).djvu/৬৭

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


C & ছোট ছোট গুটি-দুই ঘর। অতিশয় সঙ্কীর্ণ সিড়ির নীচে মিটু মিটু করিয়া একটি হারিকেন লণ্ঠন জলিতেছে, সেইটি হাতে করিয়া কমল তাহাকে উপরে আহবান করিতে অজিত সঙ্কোচ-ব্যাকুল হইয়া বলিল, না, এখন যাই। অনেক রাত • হ’লে ? কমল জিদ করিয়া কহিল, সে হবে না, আমুন। অজিত তথাপি দ্বিধা করিতেছে দেখিয়া সে বলিল, আপনি ভাবচেন এলে শিবনাথবাবুর কাছে ভারি লজ্জার কথা হবে। কিন্তু না এলে যে আমার লজ্জা আরও ঢের বেশি এ ভাবচেন না কেন ? আমন। নীচে থেকে এমন অনাদরে আপনাকে যেতে দিলে রাত্রে আমি ঘুমোতে পারবে না। অজিত উঠিয়া আসিয়া দেখিল ঘরে আসবাব নাই বলিলেই হয়। একখানি অল্প মূল্যের আরাম-কেদার, একটি ছোট টেবিল, একটি টুল, গোটা-তিনেক তোরঙ্গ, একধারে একখানি পুরানো লোহার খাটের উপর বিছানা-বালিশ গাদ করিয়া রাখা –যেন সাধারণতঃ তাহদের প্রয়োজন নাই এমনি একটা লক্ষ্মীছাড়া ভাব। ঘর শূন্ত –শিবনাথবাবু নাই। অজিত বিস্মিত হইল, কিন্তু মনে মনে ভারি একটা স্বস্তি বোধ করিয়া কহিল, কই তিনি ত এখনো আসেননি ? কমল কহিল, না । অজিত বলিল, আজ বোধ হয় আমাদের ওখানে তার গান-বাজনা খুব জোরেই চলচে । কি করে জানলেন ? কাল-পরশু ছুদিন যাননি। আজ হাতে পেয়ে আগুবাবু হয়ত সমস্ত ক্ষতিপূরণ করে নিচ্চেন । কমল প্রশ্ন করিল, রোজ যান, এ দু’দিন যাননি কেন ? অজিত কহিল, সে খবর আমাদের চেয়ে আপনি বেশি জানেন । সম্ভবতঃ আপনি ছেড়ে দেননি বলেই তিনি যেতে পারেননি। নইলে স্বেচ্ছায় গর-হাজির হয়েচেন এত তাকে দেখে কিছুতেই মনে হয় না। কমল কয়েকমুহূর্ত তাহার মুখের প্রতি চাহিয়া থাকিয় অকস্মাৎ হাসিয়া উঠিল। কহিল, কে জানে তিনি ওখানে যান গান-বাজনা করতে ! বাস্তবিক, মানুষকে জবরদস্তি ধরে রাখা বড় অন্তায়, না ? iāla :۰قسیم অজিত বলিল, নিশ্চয়। ': * . . . . ¢ዓ