প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (পঞ্চম সম্ভার).djvu/২১৬

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শরৎ-সাহিত্য-সংগ্ৰহ প্রথম উপলব্ধি করিয়া সে মরমে মরিয়া যাইতে লাগিল। অভিমানে চোখ অশ্রীপুর্ণ করিয়া সে আরো মিনিট-পাচেক নি:শব্দে দাড়াইয়া থাকিয় চোখ মুছিতে মুছিতে চলিয়া গেল। নিজের ঘরে গিয়া ঝিকে দিয়া আন্নাকালীকে ডাকাইয়া আনিয়া তাহার হাতে দশটা টাকা দিয়া কহিল, তোরা আজ যা কালী, আমার বড় অস্কখ কচ্চে, সইকে বল গে অামি যেতে পারব না । কালী জিজ্ঞাসা করিল, কি অমুখ সেজদি ? মাথা ধরেচে, গা বমি বমি কচ্চে—ভারি অস্থখ কচ্চে, বলিয়া সে বিছানায় পাশ ফিরিয়া শুইল । তারপর চারু আসিয়া সাধাসাধি করিল, পীড়াপীড়ি করিল, মামিমাকে দিয়া সুপাশি করাইল, কিন্তু কিছুতেই তাহাকে রাজি করিতে পারিল না। আন্নাকালী হাতে দশটা টাকা পাইয়া যাইবার জন্য ছট্‌ফট্‌ করিতেছিল। পাছে এই-সব হাঙ্গামায় পড়িয়া যাওয়া না ঘটে, এই ভয়ে সে চারুকে আড়ালে ডাকিয়া টাকা দেখাইয়া বলিল, সেজদর অম্লখ কচ্চে সে নাই গেল, চারুদি । আমাকে টাকা দিয়েছে, এই দ্যাথো—আমরা যাই চল । চারু বুঝিল, আন্নাকালী বয়সে ছোট হইলেও বুদ্ধিতে কাহারও অপেক্ষ খাটাে নয় ? সে সম্মত হইয়া তাহাকে সঙ্গে করিয়া চলিয়া গেল । তৃতীয় পরিচ্ছেদ চারুবালার মা মনোরমার তাঁস খেলার চেয়ে প্রিয় বঙ্গ আর কিছুই ছিল না। কিন্তু খেলার ঝে কি যতটা ছিল দক্ষতা ততটা ছিল না । তাহার এই ক্রাট শুধরাইয়া যাইত ললিতাকে পাইলে । সে খুব ভাল খেলিতে পারিত। মনোরমার মামাত ভাই গিরীন আসা পৰ্য্যন্ত এ-কয়দিন সমস্ত দুপুরবেলা তাহার ঘরে তাসের বিরাট আড়া বসিতেছিল? গিরীন পুরুষমানুষ, খেলে ভাল, স্বতরাং তার বিপক্ষে বসিতে গেলে মনোরমার ললিতাকে চাই-ই । থিয়েটার দেখার পরের দিন যথাসময়ে ললিত উপস্থিত হইল না দেখিয়া মনোরমা ৰিকে পাঠাইয়া দিলেন। ললিতা তখন একটা মোটা খাতায় একখানা ইংরাজী বই হইতে বাঙলা তর্জমা করিতেছিল, গেল না । তাহার সই জাসিয়াও যখন কিছু করিতে পারিল না, তখন মনোরমা নিজে জাসিয়া

  • օԵր