প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (পঞ্চম সম্ভার).djvu/৯৪

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শরং-সাহিত্য-সংগ্ৰহ ছিলেন, শিরোমণি ছিলেন, ঘোষজ ছিলেন, বোসজা ছিলেন, এমন কি তারাদাস ঠাকুরও ইহাদের আড়ালে মুখ নীচু করিয়া ও কান ধাড়া করিয়া সতর্ক হইয়া বসিয়াছিলেন । আরও র্যাহারা যাহারা ছিলেন র্তাহাদের কেহই যদিও অবহেলার বস্তু নহেন, তবুও ইহাদের নাম-ধাম ও বিবরণ সবিস্তারে বিদিত না হইলেও পাঠকের জীবন দুর্ভর হইয়া উঠিবে না বিবেচনা করিয়াই তাহাতে নিরস্ত হইলাম। যাই হোক ইহাদের সমবেত চেষ্টায় অভিযোগের ভূমিকাটা একপ্রকার শেষ হইয়া গেলেও আসল কথাটি উঠি উঠি করিয়াও থামিয়া যাইতেছিল—ঠিক যেন মুখে আসিয়াও কাহারও বাহির হইতে চাহিতেছিল না । জীবানন্দ চৌধুরী উপস্থিত ছিলেন। সকলের সঙ্গে থাকিয়াও একটুখানি দূরে একটা তাকিয়ার উপর দুই কনুইয়ের ভর দিয়া বসিয়া তিনি মন দিয়াই যেন সমস্ত শুনিতেছিলেন। মন প্রফুল্ল। একেবারে স্বাভাবিক না হইলেও সম্পূর্ণ কৃত্রিম বলিয়াও সন্দেহ হয় না । খুব সম্ভব মদের ফেন৷ তখনও তাহার মগজের সমস্ত আলিগলি দখল করিয়া বসে নাই । সম্মুখের বড় বড় খোলা দরজা দিয়া বারুইয়ের শুকুন বালু ও ভিজা মাঠির গন্ধ বাতাসে ভাসিয়া আসিতেছিল, এবং পাশের ঘরটাতেই বোধ করি রায়া হইতেছিল বলিয়া তাহারই রুদ্ধ দ্বারের কোন একটা ফাক দিয়া এক জাতীয় শব্দ ও গন্ধ মাঝে মাঝে এই বাতাসেই ভর দিয়া লোকের কানে ও মাকে আসিয়া পৌঁছিতেছিল, তাছা ব্যক্তিবিশেষের কাছে উপাদেয় ও রুচিকর হইলেও শিরোমণিমহাশয় চঞ্চল হইয়া উঠিতেছিলেন। হটাৎ তিনি বার-দুই কাসিয়া ও উত্তরীয় প্রান্তে নাকের ডগাটা মার্জনা করিয়া উঠিয়া গিয়া আর এক ধারে বসিতেই জীবানন সঙ্গাস্তে কহিলেন, শিরোমণিমশায়ের কি অৰ্দ্ধভোজন হয়ে গেল নাকি ? অনেকেই হাসিয়া উঠিল, শিরোমণির নাকের ডগার মত মুখখানাও রাঙা হইয়া উঠিল। জীবানন্দ তখন হাসিয়া বলিলেন, ভয় নেই ঠাকুর জাত যাবে না ; ওটা আপনাদের মা-চষ্ট্রীরই মহাপ্রসাদ । তবে যিনি রাধচেন তার গোত্রটি ঠিক জানিনে, হয়ত এক না হতেও পারে । শিরোমণি আপনাকে কতকটা সামলাইয়া কহিলেন, তা তোক, তা হোক। ব্রাহ্মণ পাচক—দরিদ্র হলেও একটা গোত্র আছে বই কি ! জীবানন্দ হাঃ হাঃ করিয়া কহিলেন, জানিনে ঠাকুর, ও সব বালাই ওর কিছু আছে কি-না। কিন্তু হাতী-বেড়ির সঙ্গে মিলে সোনার চুড়ির আওয়াজটাও আমার বড় মিঠে লাগে । আর সেই হাতে পরিবেশন করলে—ত নিমন্ত্রণ করলে ত আর— বলিয়া তিনি পুনশ্চ প্রবল হাসির শব্দে ঘর ভরিয়া দিলেন । শিরোমণি অধোবদন হইলেন, এবং ভিতরেব কদর্ঘ্য ব্যাপার যদিচ সকলেই ^