প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (প্রথম সম্ভার).djvu/১০৭

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শ্ৰীকান্ত তাহার অস্বাভাবিক উত্তেজনায় কতকটা যেন হতবুদ্ধি হইয়াই গাড়িতে উঠিয়া বসিলাম ; পিয়ারী গাড়ি হাকাইতে আদেশ দিয়া কহিল, আজ আবার এখানে তুমি কেন এলে ? আমি সত্য কথাই বলিলাম। কহিলাম, জানি না। পিয়ারী এখনও আমার হাত ছাড়ে নাই। বলিল, জান না? আচ্ছা বেশ । কিন্তু লুকিয়ে এসেছিলে কেন ? বলিলাম, এখানে আসার কথা কেউ জানে না বটে, কিন্তু লুকিয়ে আসিনি। মিথ্যে কথা । না । তার মানে ? মানে যদি খুলে বলি, বিশ্বাস করবে ? আমি লুকিয়েও আসিনি, আসবার ইচ্ছেও ছিল না । পিয়ারী বিদ্রুপের স্বরে কহিল, তা হ’লে তাবু থেকে তোমাকে উড়িয়ে এনেচে–বোধ করি বলতে চাও ? না, তা বলতে চাইনে। উড়িয়ে কেউ আনেনি ; নিজের পায়ে হেঁটে এসেছি সত্যি। কিন্তু কেন এলুম, কখন এলুম, বলতে পারিনে । পিয়ারী চুপ করিয়া রহিল। আমি বলিলাম, রাজলক্ষ্মী, তুমি বিশ্বাস করতে পারবে কি না জানিনে, কিন্তু বাস্তবিক ব্যাপারটা একটু আশ্চৰ্য্য। বলিয়া আমি সমস্ত ঘটনাট আনুপূর্বিক বিবৃত করিলাম। - শুনিতে শুনিতে আমার হাত-ধরা তাহার হাতখানা বারংবার শিহরিয়া উঠিল । কিন্তু সে একটা কথাও কহিল না। পর্দা তোলা ছিল, পিছনে চাহিয়া দেখিলাম আকাশ ফর্স হইয়া গেছে। বলিলাম, এইবার আমি যাই । পিয়ারী স্বপ্নাবিষ্টের মত কহিল, না । না কি রকম ? এমনভাবে চলে যাবার অর্থ কি হবে জান ? জানি—সব জানি । কিন্তু এরা ত আমার অভিভাবক নয় যে, মানের দায়ে প্রাণ দিতে হবে ? বলিয়াই সে আমার হাত ছাড়িয়া দিয়া পা ধরিয়া ফেলিয়া রুদ্ধস্বরে বলিয়া উঠিল, কাস্তদা, কিন্তু সেখানে ফিরে গেলে আর তুমি বঁাচবে না । তোমাকে আমার সঙ্গে যেতে হবে না, কিন্তু সেখানেও আর ফিরে ধেতে দেব না । তোমার টিকিট কিনে দিচ্ছি, তুমি বাড়ি চলে যাও—কিংবা যেখানে খুশি যাও, কিন্তু ওখানে আর এক দওও নয় । আমি বলিলাম, আমার কাপড়-চোপড় রয়েছে যে । } e Y