প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (প্রথম সম্ভার).djvu/১৭৭

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বড়দিদি বলে দেব যে অগ্রহায়ণ মাস থেকে তাকে আর কাজ করতে হবে না। শান্তি বিস্মিত হইল ; কিন্তু সন্তুষ্ট হইয়া জিজ্ঞাসা করিল, র্তার অপরাধ ? অপরাধ যে কি, তা এখন ঠিক বলতে পারূচি না, কিন্তু বড় বাড়াবাড়ি কবৃচেন । তাহার পর আদালতের সার্টিফিকেট ও কয়েকখানা কাগজপত্র দেখাইয়া কহিলেন, এই দেখ, গোলাগায়ে একজন বিধবার ঘর-বাড়ি সমস্ত বেনামী নীলামে খরিদ ক’রে নিয়েচে । আমাকে একবার জিজ্ঞাসাও করেনি । শাস্তি দুঃখিত হইয়া কহিল, আহা বিধবা ? তবে এ কাজটা ভাল হয়নি–কিন্তু বিক্রি হ’ল কেন ? দশ বৎসরের খাজনা বাকী ছিল ; স্বদে-আসলে দেড় হাজার টাকার নালিশ হয়েছিল। টাকার কথা শুনিয়া শান্তি মথুরনাথের প্রতি একটু নরম হইয়া পড়িল । মুদু হাসিয়া কহিল, তা ম্যানেজারবাবুর বা দোষ কি ? অত টাকা কেমন ক’রে ছেড়ে দেন ? --> স্বরেন্দ্রনাথ অন্যমনস্ক হইয়া ভাবিতে লাগিল । শান্তি প্রশ্ন করিল, অত টাকা ছেড়ে দেবে ? -l. দেব না ত কি, অসহায় বিধবাকে বাড়ি-ছাড়া করব ? তুমি কি পরামর্শ দাও ? কথাটার ভিতর যতটুকু জালা ছিল, সবটুকু শাস্তির গায়ে লাগিল । অপ্রতিভ হইয়া দুঃখিতভাবে সে বলিল, ন, বাড়ি-ছাড়া করতে বলি না । আর তোমার টাকা তুমি দান করবে, আমি তাতে বাধা দেব কেন ? স্বরেন্দ্র হাসিয়া কহিল, সে নয় শান্তি, আমার টাকা কি তোমার নয় ? কিন্তু বল দেখি, আমি যখন না থাকুব, তখন তুমি— ও কি কথা— তুমি-আমি যা ভালবাসি, তা করবে ত? শান্তির চোখে জল আসিল, কেন না, স্বামীর শারীরিক অবস্থা ভাল নহে, বলিল, ও কথা কেন বল ? - বড় ভাল লাগে, তাই বলি, তুমি, আমার কথা, আমার সাধ-ইচ্ছা জেনে রাখবে না শাস্তি ? শান্তি চক্ষে অঞ্চল দিয়া মাথা নাড়িল । কিছুক্ষণ পরে স্বরেন্দ্র পুনরায় কহিল, আমার বড়দিদির নাম। শাস্তি অঞ্চল সরাইয়া স্বরেন্সর মুখপানে চাহিল। _ স্বরেন্দ্র একখানা কাগজ দেখাইয়া বলিলেন, এই দেখ, আমার বড়দিদির নাম ।

מר כ