পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (প্রথম সম্ভার).djvu/৪১৫

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


চন্দ্রনাথ খেলিতে পারেন, সে অঙ্গ মাথ উচু কবিয়া স্বেচ্ছায় একখান নৌক মাৱ দিয়৷ খেলা আরম্ভ করে । পূর্বের মত এখনও খেলিবার ঝোক আছে কিন্তু সামর্থ্য নাই। দুই-একটা শক্ত চাল এখনও মনে পড়ে—কিন্তু সোজা খেলায় বড় ভুল হইয়া যায়। দাবা খেলায় গৰ্ব্ব ছিল—আজ তাহ শুধু লজ্জায় পরিণত হইয়াছে। তবে শম্ভু মিশির এখনও সন্মান করে ; সে আর প্রতিদ্বন্দ্বী হইয় খেলে না, প্রয়োজন হইলে দুই-একটা কঠিন সমস্ত পূৰ্ণ করিয়া লইয়া যায় । বাড়িতে আজকাল তাহার বড় গোলযোগ বাধিতেছে । লখীয়ার মা দস্তুরমত রাগ করিতেছে ; দু-একদিন তাহাকে চোখের জল মূছিতেও দেখা গিয়াছে। সে বলে, বাৰু, খাওয়া-দাওয়া কি একেবারে ছেড়ে দিলে ? আয়না দিয়া চেহারাটা দেখ গে | কৈলাসচন্দ্র মৃদু হাসিয়া কহেন, বেটি রাধাবাড়ী সব ভুলে গেছি—আর আগুনতাতে যেতে পারিনে । সে বহুদিনের পুরানো দাসী, ছাড়ে না, বক-ঝকা করিয়া এক-আধ মুঠ চাউল সিদ্ধ করাইয়া লয় । এমন করিয়া এক মাস কাটিয়া গেল । wo তাহার পর তিন-চারদিন ধরিয়া কৈলাসখুড়োকে আর কেহ দেখিতে পাইল না। শম্ভু মিশির এ কথা প্রথমে মনে করিল। সে দেখিতে আসিল। ডাকিল, বাবুজী ! লখীয়ার মা উত্তর দিল । কহিল, বাবুর বোখার হয়েছে। মিশিরজী কঙ্গে প্রবেশ করিয়া বিছানার নিকট আসিয়া বলিল, বাবুজী, বোখার झ्'ठा कि ? কৈলাসচন্দ্র সহাস্তে বলিলেন, হ্যা, মিশির জী, ডাক পড়েছে, তাই আস্তে আস্তে যাচ্চি । মিশিরজী কহিল, ছিয়া ছিয়া—রাম রাম ! আরাম হো যায়েগা । আর আরাম হবার বয়স নেই ঠাকুর—এইবার রওনা হ’তে হবে। কবিরাজ বোলায় ছিলে ? কৈলাসচন্দ্র আবার হাসিলেন, আটঘট্রি-বছর বয়সে কবিরাজ এসে আর কি করবে মিশিরজী ? আটযটু বরষ—বাবুজী ! আউর আটষট আদমী জিতে পারে। কৈলাসচন্দ্র সে কথায় উত্তর না দিয়া সহসা বলিলেন, ভাল কথা মিশিরজী ! 8 ఆ స్గా ১ম – ৫২