পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (প্রথম সম্ভার).djvu/৭৩

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শ্ৰীকান্ত । করিয়া চিঠিপত্র লিখিতে শুরু করবেন, ভাবি নাই। মাঝে হঠাৎ একদিন দেখাঁ । তখন সবে সাবালক হইয়াছেন। অনেক জমানে টাকা হাতে পড়িয়াছে এবং তার পরে ইত্যাদি ইত্যাদি । রাজার ছেলের কানে গিয়াছে—অতিরঞ্জিত হইয়াই গিয়াছে— রাইফেল চালাইতে আমার জুড়ি নাই, এবং আরও এত প্রকারের গুণগ্রাম ইতিমধ্যে মণ্ডিত হইয়া উঠিয়াছে যে, একমাত্র সাবালক রাজপুত্রেঃই অন্তরঙ্গ বন্ধু হইবার আমি উপযুক্ত। তবে কিনা, আত্মীয়-বন্ধু-বান্ধবেরা আপনার লোকের মুখ্যাতিট। একটু বাড়াইয়াই করে, ন হইলে সত্য সত্যই যে অতখানি বিদ্যা অমন বেশী পরিমাণে ওই বয়সটাতেও অর্জন করিতে পারিয়াছিলাম, সে অহঙ্কার করা আমার শোভা পায় না, অন্ততঃ এটুকু বিনয় থাকা ভাল। কিন্তু যাক সে কথা । শাস্ত্রকারেরা বলেন, রাজা-রাজড়ার সাদর আহবান কখনো উপেক্ষা করিবে না । হিন্ধুর ছেলে, শাস্ত্র অমান্ত করিতেও ত আর পারি না । কাজেই গেলাম। স্টেশন হইতে দশবারো ক্রোশ পথ গজপুষ্টে গিয়া দেখি, ই, রাজপুত্রের সাবালকত্বের লক্ষণ বটে। গোটাপাচেক তাবু পড়িয়াছে। একটা তার নিজস্ব, একটা বন্ধুদের, একটা ভূত্যদের, একটায় খাবার বন্দোবস্ত । আর একটা অমনি একটু দূরে—সেট। ভাগ করিয়া জন-দুই বাইজী ও র্তাহাদের সাঙ্গপাঙ্গদের আডড । তখন সন্ধ্যা উত্তীর্ণ হইয়াছে। রাজপুত্রের ধাস-কামরায় অনেকক্ষণ হইতেই যে সঙ্গীতের বৈঠক বসিয়াছে, তাহ প্রবেশমাত্রই টের পাইলাম। রাজপুত্র অত্যন্ত সমাদরে আমাকে গ্রহণ করিলেন । এমন কি আদরের আতিশয্যে দাড়াইবার আয়োজন করিয়া, তিনি তাকিয়ায় ঠেস্ দিয়া শুইয়া পড়িলেন । বন্ধু-বান্ধবেরা বিহ্বল কলকণ্ঠে সংবৰ্দ্ধনা করিতে লাগিলেন । আমি সম্পূর্ণ অপরিচিত । কিন্তু সেট, তাহাদের যে অবস্থা, তাহাতে অপরিচয়ের জন্য বাধে না । এই বাইঞ্জীটি পাটনা হইতে অনেক টাকার শর্তে দুই সপ্তাহের জন্য আসিয়াছেন। এইখানে রাজকুমার যে বিবেচনা এবং যে বিচক্ষণতার পরিচয় দিয়াছেন, সে কথা স্বীকার করিতেই হইবে । বাইজী স্বী, অতিশয় মুকণ্ঠ এবং গান গাহিতে জানে । আমি প্রবেশ করিতেই গানটা থামিয়া গিয়াছিল। তার পর সময়োচিত বাক্যালাপ ও আদব-কায়দা সমাপন করিতে কিছুক্ষণ গেল । রাজপুত্র অনুগ্রহ করিয়া আমাকে গান ফরমাস করিতে অনুরোধ করিলেন। রাজাজা শুনিয়া প্রথAট অত্যন্ত কুষ্ঠিত হইয়া উঠিলাম, কিন্তু অল্প কিছুক্ষণেই বুঝিলাম, এই সঙ্গীতের মজলিসে আমিই মা-হোক একটু ঝাপসা দেখি, আর সবাই ছুর্চোর মত কালা । বাইজী প্রফুল্প হইয়া উঠিলেন । পয়সার লোভে অনেক কাজই পায়া ৰাষ্ট্র too