প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (সপ্তম সম্ভার).djvu/১৬১

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


श्रृंश्मोह মুখ বাহির করিয়া কহিল, ভিড় ছিল না, একটু গুয়ে নিলে না কেন স্বরেশ ? এমন স্ববিধে ত বরাবর আশা করা যায় না ? স্বরেশ চমকিয়া বলিল, হ্যা, এই যে শুই । এই চমকটা এমনি অসঙ্গত ও অকারণে কুষ্ঠিত দেখাইল যে, মহিম সবিস্ময়ে অবাক হইয়া রহিল। সে যেন তাহার অগোচরে কি একটা অপরাধ করিতেছিল, ধরা পড়ার ভয়েই এমন ত্রস্ত হইয়া পড়িয়াছে, এই ভাবট মহিম অনেকক্ষণ পর্য্যন্ত মন হইতে দূর করিতে পারিল না। গাড়ি আসিয়া স্টেশনে থামিল । স্বরেশ আপনার অবস্থাটা অনুভব করিয়া একটুখানি হাসির আভাসে মুখখান সরস করিয়া কহিল, আমি ভেবেছিলুম তুমি ঘুমোচ্ছ, তাই চমকে উঠেছিলাম। মহিম শুধু কহিল, ছ ; কিন্তু এই অনাবশ্বক কৈফিয়ংটাও তাহার ভাল লাগিল না। স্বরেশ বলিল, তার কিছু চাই কি না একবার খবর নিতে পারলে – কিন্তু জল পড়চে না ? 峻 ও কিছুই নয়, আমি চট্‌ করে দেখে আসচি, বলিয়া মুরেশ দরজা খুলিয়া বাহির হইয়া গেল। সে মেয়েগাড়ির স্বমুখে আসিয়া দেখিল, অচলা ইতিমধ্যে একটি সমবয়সী সঙ্গী পাইয়াছে এবং তাহারই সহিত গল্প করিতেছে। ষেই অগ্রে সুরেশকে দেখিতে পাইয়া অচলার গা টিপিয়া দিয়া মুখ ফিরিয়া বসিল, অচলা চাহিয়া দেখিতেই স্বরেশ কিছু চাই কি না জিজ্ঞাসা করিল। আচল ঘাড় নাড়িয়া কহিল, না ; তোমার জলে ভিজতে হবে না যাও। বলিয়াই কিন্তু নিজের জানালার কাছে উঠিয়া আসিয়া মৃদুকণ্ঠে কহিল, আমার জন্যে তোমাকে ভাবতে হবে না, কিন্তু র্যার জন্যে ভাবনা র্তার প্রতি যেন দৃষ্টি থাকে। 哆 স্বরেশ কহিল, তা আছে, কিন্তু তোমার কিছু খাবার, কিংবা চা, কিংবা শুধু একটু জল— অচলা সহাস্তে বলিল, না গো না, আমার কিছু চাইনে । কিন্তু তুমি নিজে কি জলে ভিজে অস্কখ করতে চাও না-কি ? স্বরেশ পলকমাত্র অচলার মুখের দিকে দৃষ্টিপাত করিয়াই চক্ষু আনত করিল, কহিল, অনেকদিন থেকেই ত চাইচি, কিন্তু হতভাগ্যের কাছে অমুখ পৰ্য্যন্ত ঘোষতে চায় না যে | কথা শুনিয়া অচলার কর্ণমূল পৰ্য্যন্ত লজ্জায় আরক্ত হইয়া উঠিল ; কিন্তু পাছে স্বরেশ মুখ তুলিয়া তাহ দেখিতে পায়, এই আশঙ্কায় সে কোনমতে ইহাকে একটা পরিহাসের আকার দিতে জোর করিয়া হাসিয়া বলিল, আচ্ছা, একবার চল ন । তখন এমন খাটুনি খাটাৰ ষে— >^\з 翁 هس-۹