প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (সপ্তম সম্ভার).djvu/২০৮

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শরৎ-সাহিত্য-সংগ্ৰহ नर्तनिक नर्तकाल बानियाहे ७३ धडङ| ब्रिनि नूति यश्म अभक्षु ७ बक्ध श्रेय। বুহিবে—কোনদিন কোন যুগেও ইহার আর বিরাম মিলিবে না, বিচ্ছেদ ঘটবে না। অচলা বাধা দিল না, জোর করিল না ; মনে হইল, ইহার জন্যও সে প্রস্তুত হইয়াই ছিল, শুধু কেবল তাহার শাস্ত মুখখান একেবারে পাথরের মত শীতল ও কঠোর হইয়া উঠিল । সুরেশের চৈতন্য ছিল না –বোধ হয় স্থইর কঠিনতম তমিস্রায় তাহার দুই চক্ষু একেবারে অন্ধ হইয়া গিয়াছিল, না হইলে এ মুখ চুম্বন করার লজ্জা ও অপমান আজ তাহার কাছে ধরা পড়িতেও পারি ত। ধরা পড়িল না সত্য, কিন্তু শুদ্ধাত্র প্রান্তিতেই বোধ করি এই উন্মানা যখন স্থির হইয়া আসিল, তখন অচলা ধীরে ধীরে নিজেকেই মুক্ত করিয়া লইয়া আপনার জায়গায় ফিরিয়া আসিয়া বসিল । আরও ক্ষণকাল দু’জনের যখন চুপ করিয়া কাটিল, তখন স্কুরেশ অকস্মাৎ একটা দীর্ঘশ্বাস ফেলিয়া বলিয়া উঠিল, আচল, এমন ক’রে আর আমাদের কতদিন কাটবে ? বলিয়া উত্তরের অপেক্ষ না করিয়াই কহিতে লাগিল, তোমার কষ্ট আমি জানি, কিন্তু আমার দুঃখটাও ভেবে দেখ। আমি যে গেলুম। এ-প্রশ্নের জবাব না দিয়াই অচলা জিজ্ঞাসা করিল, তুমি কি এখানে বাড়ি কিনেচ ? সুরেশ বিপুল আগ্রহে বলিয়া উঠিল, সে ত তোমারই জন্ত অচলা । অচলা ইহার কোন প্রত্যুত্তর না দিয়া পুনশ্চ প্রশ্ন করিল, আসবাবপত্র, গাড়িঘোড়াও কি কিনতে পাঠিয়েচ ? স্বরেশ তেমন করিয়াই উত্তর দিল, কিন্তু সমস্তই ত তোমারই জন্তে । অচল নীরব হইয়া রহিল । এ-সকলে তাহীর কি প্রয়োজন, এ সকল সে চায় কি না, ওই লোকটার কাছে এ প্রশ্ন করার মত নিজের প্রতি বিদ্রুপ আর কি জাছে ? তাই এ-সম্বন্ধে আর কোন কথা না কহিয়া মৌন হইয়া রহিল। মুহূৰ্ত্ত কয়েক পরে জিজ্ঞাসা করিল, রামবাবুর কাছে কি তুমি আমার বাবার নাম করেচ। বাড়ি কোথায় বলেচ ? স্বরেশ বলিল, না । আর কি সেঙ্ক দেবার দরকার আছে ? त्रः । তা হলে এখন আমি চললুম। আমার বড় ঘুম পাচ্চে । বলিয়া অচলা চৌকি ছাড়িয়া উঠয় দাড়াইল এবং আগুনের পাত্রটা সরাইয়া রাখিয়া ঘরের বাহির হইয়া কপাট বন্ধ করিবার উপক্ৰম করিতেই স্বরেশ ধড়মড় করিয়া উঠিয়া বসিয়া কহিল, আজ আর একটা কথা বলে যাও অচলা। তুমি কি আর কোথাও যেতে চাও? সত্যি বলো ? 3е е