প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (সপ্তম সম্ভার).djvu/২৪৬

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শরৎ-সাহিত্য-সংগ্ৰহ बांब्राम्यांद्र । उषंग्नि अछाछ ८ष८झtनद्र गरक ब्रांकूनो७ बिहान झांझिब्रां हृब्रिीं जांनिबां দাড়াইয়াছিল ; বহুদিনের পর চোখে চোখে হইতে দুই সখীর মুখেই হাসি ফুটিয়া উঠিল। রামবাৰু নীচেই ছিলেন, তিনি গায়ের বালাপোৰখানা ফেলিয়া দিয়া আনন্দে সস্নেহে জাহান করিলেন, এসো এসো, আমার মা এসে ! এই পরিচিত কণ্ঠস্বরের ব্যগ্র-ব্যাকুল আহানে তাহাৰ হালিমাখা চোখের দৃষ্টি মুহূৰ্ত্তে নামিয়া আসিয়া বুদ্ধের উপর নিপতিত হইল ; কিন্তু তাহারই পার্থে দাড়াইয়া অাজ মহিম –তাহারই প্রতি চাহিয়া যেন পাথর হইয়া গিয়াছে। চোখে চোখে মিলল, কিন্তু সে চোখে আর পলক পড়িল না । সৰ্ব্বাঙ্গের মণি-মুক্ত অচলার তেমনি ঝলসিতে লাগিল, হীরা-মানিকের দীপ্তি লেশমাত্র নিম্প্রভ হইল না, কিন্তু তা মাঝখানে প্রস্ফুটিত কমল যেন চক্ষের নিমিষে মরিয়া গেল। - কিন্তু আসন্ন সন্ধ্যার ক্ষীণ আলোকে বুদ্ধের ভূল হইল। অপরিচিত পুরুষের সম্মুখে তাহাকে সহসা লজ্জায় স্নান ও বিপন্ন কল্পনা করিয়া তিনি ব্যস্ত হইয়া অচলার অানত ললাট দুই হাতে ধরিয়া ফেলিয়া বলিলেন, থাকু মা, তোমাকে পায়ের ধূলা নিতে হবে না, তুমি ওপরে যাও— অচলা কিছুই বলিল না, টলিতে টলিতে চলিয়া গেল ! রামবাবু কহিলেন, স্বরেশবাবু, ইনি— স্বরেশ কহিল, বিলক্ষণ ! আমরা ষে এক ক্লাসের—ছেলেবেলা থেকে দু’জনে আমরা—, বলিয়া সহসা হাসির চেষ্টায় মুখখানা বিকৃত করিয়া বলিল, কি মহিম, হঠাৎ তুমি যে কিন্তু কথাটা আর শেষ হইতে পারিল না। মহিম মুখ ফিরাইয়া ক্রতপদে ঘরের মধ্যে গিয়া প্রবেশ করিল। হতবুদ্ধি বৃদ্ধ স্বরেশের মুখের প্রতি চাহিলেন এবং স্বরেশও প্রত্যুত্তরে আর একটা হাসির প্রয়াস করিতে গেল, কিন্তু তাহাও সম্পূর্ণ হইতে পাইল না। উপরে যাইবার কাঠের সিড়িতে অকস্মাং গুরুতর শব্দ শুনিয়া দুইজনেই স্তৰু হইয়া গেলেন। একটা গোলমাল উঠিল, রামবাৰু ছুটিয়া গিয়া দেখিলেন, আচল উপুড় হইয়া পড়িয়া। সে দুই-তিনটি ধাপ উঠিতে পারিয়াছিল মাত্র, তাহার পরেই মূৰ্ছিত হইয়া পড়িয়া निंब्रां८छ् । ፶፪ሆ