প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (সপ্তম সম্ভার).djvu/৩০

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শরৎ-সাহিত্য-সংগ্রই নমস্কার করিতে দেখিয়া সুরেশ অপ্রতিভ হইয়া প্রতি-নমস্কার করিল ; এবং নিজের অনাবশ্যক উত্তেজনার সঙ্গে অচলার শাস্ত ধীর কথাগুলি ওজন করিয়া শতগুণ লজ্জিত ও কুষ্ঠত হইয়া উঠিল। কণ্ঠস্বর যথাসাধ্য সহজ ও স্বাভাবিক করিয়া বলিল, দরকার যাই হোক—সে এমন কি ভয়ানক হতে পারে যে, অন্ততঃ দুমিনিটের জন্য এসেও একবার আপনাকে সে বলে যেতে পারে না ? আর যখন কবে ফিরবে তার কোন ঠিকানা নেই, আপনিই বলুন, বাড়িতেই বা তার আছে কে—যার অস্তুখের জন্তে তাকে এভাবে যেতে হয় ? আমি "ন্ত মরে গেলে ও এমল করে চলে যেতে পারতুম না । অচলার মুখের উপর দিয়া একটা সলজ স্নিগ্ধ হাসি খেলিয়া গেল। কহিল, আপনার এখনও কেউ হয়নি বলেই এ-কথা বললেন ; কিন্তু হলে ঠিক ওঁর মতই অবহেলা করে চলে যেতেন—এ আমি নিশ্চয় বলচি । সুরেশ তাহার বসিবার চৌকির হাতলের উপর সজোরে একটা চপেটাঘাত করিয়া কহিল, কখখনো না । আমাকে আপনি চেনেন না, তাই একথা বলতে পারলেন, কিন্তু চিনলে, পারতেন না । অচলা কহিল, বেশ ত, এখন থেকে ত চিনতে পারব ; আর কেউ হলে জানতেও পারব। কি বলেন ? সুরেশ কহিল, নিশ্চয়। একশবার । তা ছাড়া মহিমের মত আমি বন্ধুর কাছে কোনকথা গোপন করে রাখতেও পারিনে, রাখা ভালও মনে করিনে ; বলিয়া হঠাৎ উত্তেজিত হইয়া বলিয়া উঠিল, আপনি বলচেন, হলে জানতে পারবেন, কিন্তু আমি বলচি যে, আপনাকে না জানিয়ে, আপনার মত না নিয়ে এ-সব কখনো হবেই না, কারণ আপনাকে মহিমের সঙ্গে পৃথক করে দেখার সাধ্য আমার নেই। আপনার আমার কাছে আজ অভিন্ন । অচলা সলজ্জ হাসিমুখে মাথা নাড়িয়া বলিল, আচ্ছা সে তখন দেখা যাবে। কিন্তু আপনাকে যাচাই করার শুভদিন না আসা পর্য্যন্ত আমি কিন্তু আপনার বন্ধুকে দোষী করতে পারব না মুরেশবাবু। সুরেশ সহসা গম্ভীর হইয়া কহিল, সে আপনার ইচ্ছ। কিন্তু আমাকে যাচাই করবার শুভদিন এ-জন্মে ঘটবে কিনা সন্দেহ । কিন্তু সে যাক । আজ সকালেই কেন আপনাদের কাছে এসেচি জানেন ? কাল রাত্রে আমি যুতে পারিনি—না এলে আজও পারব না তাও জানতুম। আমি অনেক অপরাধ করেচি—তার সমস্ত একটি একটি করে আজ আপনার কাছে স্বীকার করে আমি যাব। আমি তাই এসেচি । তাহার প্রবল বিরুদ্ধতা অচলার অবিদিত ছিল না । তাই সে শঙ্কিত-মুখে ૨ ર