প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (সপ্তম সম্ভার).djvu/৩০৯

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বিন্দুর ছেলে পিসিমা অবাক হইয়া বলিলেন, শোন কথা ! কত লোক তোদের এ-বেলা খাবে আমি তার কি জানি ? - বিন্দু রাগিয়া বলিল, তবে বল গে ওঁকে। সে ছিল দিদি ; অমূল্যধমের পৈতের সময় তিনদিন ধরে সহরের সমস্ত লোক খেলে, একবার বলেনি, ছোটবোঁ, ওটা কর গে, সেটা দেখ গে। তার একটা হাড়ের যা যোগ্যতা, এ-বাড়ির সমস্ত লোকের তাঁ নেই। বলিয়া আর একটা ঘরে চলিয়া গেল। - কাম আসিয়া জিজ্ঞাসা করিল, দিদি, জামাইবাৰু বলচেন পূজোর কাপড়চোপড়-গুলো— - তাহার কথা শেষ হইবার পূৰ্ব্বেই চেঁচাইয়া উঠিল, খেয়ে ফ্যাল আমাকে, তোরা খেয়ে ফ্যাল। যা দূর হ সামনে থেকে। কদম শশব্যস্তে পালায়ন করিল। খানিক পরে মাধব আসিয়া কয়েকবার ডাকাডাকি করিয়া বলিল, ওগো শুনতে পাচ্চ ? বিন্দু কাছে সরিয়া আসিয়া ঝঙ্কার দিয়া বলিয়া উঠিল, পাচ্ছি না। আমি পারব না । পারব না । পারব না । হ’ল ? মাধব অবাক হইয়া চাহিয়া রহিল। বিন্দু বলিল, কি করবে, আমার গলায় ফাসি দেবে ? না হয় তাই দাও, বলিয়া কাদিয়া ক্রতপদে সরিয়া গেল । বেলা বাড়িয়া উঠিতে লাগিল । বিন্দু বিনা কাজে ছট্‌ফট্‌ করিয়া এ-ধর ও-ঘর করিয়া কেবলি লোকের দোষ ধরিয়া বেড়াইতে লাগিল। কে তাড়াতাড়ি পথের উপর কতকগুলো বাসন রাখিয়া গিয়াছিল, বিন্দু টান মারিয়া সেগুলো উঠানের উপর ফেলিয়া দিয়া, কি করিয়া কাজ করিতে হয় শিখাইয়া দিল ; কার ভিজা কাপড় শুকাইতেছিল, উড়িয়া তাহার গায়ে লাগিবামাত্র টানিয়া খণ্ড খণ্ড করিয়া ছিড়িয়া ফেলিয়া, কি করিয়া কাপড় শুকাইতে হয় বুঝাইয়া দিল। যে কেহ তাহার সামনে পড়িল, সে সভয়ে পাশ কাটাইয়া দাড়াইল । পুরোহিত-বেচারা নিজে ভিতরে আসিয়া বলিলেন, তাই ত ! বেলা বাড়তে লাগল—কোন বিলি ব্যবস্থাই দেখিনে— বিন্দু আড়ালে দাড়াইয়া কড়া করিয়া জবাব দিল, কাজকর্শ্বের বাড়িতে বেলা একটু হয়ই। বলিয়া আর একটা বাসন পা দিয়া ছুড়িয়া ফেলিয়া দিয়া আর একটা ঘরের মেঝের উপর নিজীবের মত বসিয়া রহিল । মিনিট দশেক পরে হঠাৎ তাহার কানে একটা পরিচিত কষ্ঠের শব্দ যাইবামাত্রই সে ধড়ফড় করিয়া \se )