প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (সপ্তম সম্ভার).djvu/৯১

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


গৃহদাহু অচলা কহিল, আমি এই বলচি যে, কি এমন গুরুতর অপরাধ করেচি, যাতে এই অপমানটা আমাকে না করলে তোমার চলছিল না ? মমি হতবুদ্ধি হইয়া পুনরায় সেই প্রশ্নই করিল। কহিল, কি বলচ ? এ সব কথার মানে কি ? অচলা অকস্মাৎ উচ্চকণ্ঠে বলিয়া উঠিল, মানে এই যে, কি অপরাধে আমাকে এই অপমান করলে তুমি ? তোমার কি করেচি আমি ? মহিম বিহ্বল হইয়া উঠিল, বলিল, আমি তোমাকে অপমান করেচি ? অচলা বলিল, ই, তুমি । মহিম প্রতিবাদ করিয়া বলিল, মিছে কথা । অচলা মূহূৰ্ত্তকালের জন্য স্তম্ভিত হইয়া রহিল। তার পরে কণ্ঠস্বর মৃদ্ধ করিয়া বলিল, আমি কোনদিন মিছে কথা বলিনে । কিন্তু সে কথা যাক ; এখন তোমার নিজের যদি সত্যবাদী বলে অভিমান থাকে, সত্য জবাব দেবে ? মহিম উৎসুক-দৃষ্টিতে চাহিয়া রহিল। په অচলা প্রশ্ন করিল, মৃণালদিদি যা করে আজ চলে গেলেন, তাকে কি তোমাদের পাড়াগায়ের সমাজে অপমান করা বলে না ? মহিম বলিল, কিন্তু তাতে আমাকে জড়াতে চাও কেন ? অচলা কহিল, বলচি । আগে বল, তাকে কি বলা হয় এখানে ? মহিম কঠিল, বেশ, তাই যদি হয়— অচলা বাধা দিয়া কহিল, হয় নয়, ঠিক জবাব দাও । মহিম কহিল, ই, পাড়াগায়েও অপমান বলেই লোকে মনে করে । অচলা কহিল, করে ত ? তবে, তুমি সমস্ত জেনে-শুনে এই অপমান করিয়েচ। তুমি নিশ্চয় জানতে তিনি আমার ছোয় রান্না খাবেন না। ঠিক কি না ? বলিয়া সে নির্নিমেষ চক্ষে চাহিয়া মহিমের বুকের ভিতর পর্য্যন্ত যেন তাহার জলন্ত দৃষ্টি প্রেরণ করিতে লাগিল। মহিম তেমনি অভিভূতের মত শুধু চাহিয়া রহিল। তাহার মুখ দিয়া একটা কথাও বাহির হইল না । ঠিক এমনি সময়ে বাহির হইতে স্বরেশের চীৎকার আসিয়া পৌছিল- মহিম! কোথা হে ? وكالا একি স্বরেশ যে ! এস এস, বাড়ির ভেতরে এস । ভাল ত ? মহিমের স্বাগত-সম্ভাষণ সমাপ্ত হইবার পূৰ্ব্বেই স্বরেশ সম্মুখে জাসিয়া দাড়াইল ty'ẹ