পাতা:শিক্ষাবিধায়ক প্রস্তাব.pdf/২৮

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


পাঠশালার শিক্ষা প্রদানের রীতি । ১৭ পুনঃ পুনঃ তাহাদিগের প্রতি প্রশ্ন করেন। ঐ সকল প্ৰশু এমন হইলে ভাল হয় যে, যদার বালকদিগের মনোযোগ অাছে কি না, এবং তাহার। কথিত বিষয় বুঝিতেছে কি না, এই দুই একেবারে পরীক্ষিত্ত হয় । কোন২ ক্ষেত্র এমত আছে যে, তাহাতে দুই তিন বৎসর উপর্যুপরি এক প্রকার ফসল উত্তম হয় না । এক বৎসর ধান্য উত্তম হয়, তাহার পর বৎসর সর্ষপ র। কলায় উত্তম হয়, কিন্তু পুনৰ্ব্বার তৃতীয় বৎসরে ধামা উত্তম হইতে পারে । ক্লষকের এইটি জানে । কিন্তু মনুষ্যের মনের ও ষে ঐ প্রকার একটি গুণ আছে, তীক্ষণ BBBB BBB DBBBB BBSS S BBBS BB BB BBS য়ের কথা লইয়। অনেক ক্ষণ ধরিয়। বালকদিগের সমক্ষে কহিতে থাকেন, এবং শিশুরা তচ্ছ,ৰণে অমনোযোগী হইলেই ক্রোধাৰিষ্ট হয়েন । র্তাহার। বিবেচনা করেন ম! মে, এক কথ। এক শ বীর শুলিতে শিশুদিগের ও বিইক্তি জন্মে বস্তুতঃ কোন শাস্ত্র-বিশেষ সম্বন্ধীয় কথায় কেবল বিশেষ বিশেষ কতিপয় মনে রক্তির, চালনা হয়, সুতরাং সেই বৃতিগুলি শীৰ্ঘ ক্লান্ত স্ক'ইয় পড়ে। যদি সেই সময়ে অস্য কথার উ’, প’ন দ্বার। অন্য মনোৱত্তির গুড্রেক করা যায়, তাহ হই লই ক্লtfওঁ বোধ হয় মা । যেমন মধু-মক্ষিকাগণ একেবারে একটি পুষ্পের সমুদায় মধুশোষণ করিয়া লয় না, কখন এ ফুলে কখন ও ফুলে বসিয়। মধুপান করে, মুকুমার-মতি শিশুগণও সেই