পাতা:শিখগুরু ও শিখজাতি.pdf/১০

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


फेनाद्रवाहेबौठिद्र श्रबनान झ्हेब्राझ्णि ५वः ८गहेबछड़े ८भाशणनात्र তখন ভারতবর্ষের আ মুসলমানধৰ্ম্ম ও সমাজকে আত্মরক্ষায় জাগরক করি ফুলিয়াছিল । বস্তুত তখন ভিতরে বাহিরে আঘাত পাইয়া সমস্ত গুরস্তবা নানাস্থানেই একটা যেন ধৰ্ম্মচেষ্টার উদ্বোধন ইয়াছিল। হিন্দু ধ" সমাজে তখন যে একটি জীবনচাঞ্চল্য ঘটিছিল, বিশেষভাবে দাক্ষিণাত্ত্বে তাহা নানা সাধুভক্তকে আশ্ৰয় করিয়া নব নব ধৰ্ম্মোৎসাহে প্রকা পাইয়াছিল। সেইরূপ সচেতন অবস্থায় ঔরঙ্গজেবের অত্যাচারে শিবাজী স্কায় বীরপুরুষ যে ভারতবর্ষে স্বধৰ্ম্মকে জয়যুক্ত করিবার জষ্ঠ ব্রত গ্ৰহ করিবেন, ইহা স্বাভাবিক । আবার ভারতবর্ষের পশ্চিমপ্রান্তে এই সময়ে নবজ্ঞাৰোদ্দীপ্ত শিখ ধৰ্ম্মেয় প্রভাবে শিখ-সম্প্রদায়ের চিত্ত্বও প্রাণপূর্ণ হইয়া উঠিয়াছিল সেই কারণেই মোগলশাসনের পীড়ন তাহাকে দমন করিতে পা:ে নাই, বরঞ্চ তাড়নাপ্রাপ্ত অগ্নির ন্যায় তাহাকে উষ্ঠত করিয়া তুলিয়াছিল কিন্তু যদিচ ভিতরকার প্রভাব ও বাহিরের আঘাত উভঞ্জেরী পক্ষে একই রকম ছিল তথাপি তাহার ক্রিয় গুরুগোবিন এবং শিবাজী মধ্যে একভাবে প্রকাশ পায় নাই । গুরুগোবিন্দ মোগলদের সঙ্গে অনেক লড়াই করিয়াছেন কিন্তু তাহা কেমন খাপছাড়া মত । প্রতিহিংসা এবং আত্মরক্ষাসাধনৰ তাহার মুখ্য উদ্দেশু ছিল । কিন্তু শিবাজী যে সকল যুদ্ধবিগ্রহে প্রবৃত্ত হইয়াছিলেন তাৰ গোপীনপরম্পরার মত ; তাহ রাগারাগি—লড়ালড়িমাত্র নহে । তাহ সমস্ত ভারতবর্ষকে এবং দূর কালকে লঙ্কা করিয়া একটি বৃহং আয়োজন ৰিস্তাৱ করিতেছিল, তাহার মধ্যে একটি ৰিপুল জানুপূজিতা ছিল