পাতা:শিখগুরু ও শিখজাতি.pdf/১০৬

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


भाबम फवश्वTां★ 9جيا, অতঃপর মুরথ মুসলমানদের অধিকৃত একটি নগর অধিকার করিলেন। মুসলমানপক্ষের সেনাপতি যুদ্ধক্ষেত্রে প্রাণ হারাইলেন । বিজয়ী সুরঙ্গ সিংহ বিবিধ যুদ্ধোপকরণ ও ধনরত্ন লাভ করিলেন। এই সময়ে তিনি গুজরানওয়ালে একটি দুর্গ নিৰ্ম্মাণ করেন । লাহোরের শাসনকর্তা এই চুর্গ আক্রমণ করিয়া পরাজিত হইলেন । এইরূপ জয়লাভে সুরথের খ্যাতি চতুদিকে ব্যাপ্ত হইয়া পড়িল এবং তাহার মিশলের জনবল বাড়িয়া গেল। ১৭৬৭ খৃষ্টান্ধে রাণীরাজ আমেদসাহ যখন শেষবার পাঞ্জাৰ আক্রমণ করেন, সুরথসিংহ তখন যুদ্ধক্ষেত্রে আপন বিক্রম প্রকাশ করিয়াছিলেন। তিনি পলায়নপর আফগানসৈন্তের অনুসরণ করিয়াছিলেন। তখন তিনি রোটাস দুর্গ ও মুসলমানদের অধিকৃত কতকগুলি নগর অধিকার করেন। বিতস্ত নদীর উত্তরতীরবর্তী প্রদেশ তাহার শাসনাধীন হইল। স্বাধীনতাপ্রতিষ্ঠার নিমিত্ত্ব শিখেরা আফগানদের সহিত শেষবার যে সংগ্রাম করিয়াছিল, সেই যুদ্ধে সুরথ সিংহের বীরত্ব শিখদিগের বিজয়ী হইবার পক্ষে বিশেষ আনুকুল্য করিয়াছিল। শিখদের ভীষণ শত্রু আমেদগাহ যখন পরাজিত হইয়। পঞ্চনদপ্রদেশ হইতে বিতাড়িত হইলেন, তখন শিখ নায়কের প্রাধান্তলাভের নিমিত্ত আত্মবিবাদে প্রবৃত্ত হন । মুরথ সিংহের ঐশ্বৰ্য্য ও প্রভূত্ব প্রতিদ্বন্দ্বী নায়কদিগের ঈর্ষ জাগাইয়া ভুলিয়াছিল, তাহার স্থরথসিংহের ক্ষমতা খৰ্ব্ব করিবার নিমিত্ত সংগ্রামে প্রবৃত্ত হইলেন । এই বিবাদে যুদ্ধক্ষেত্রে তাহার মৃত্যু হইল। মুয়ণ সিংহের মৃত্যুকালে তাহার একমাত্র পুত্র মহাসিংহ দশবৎসরের বালক ছিলেন । তিনি বিস্তৃত পৈতৃক সম্পত্তির উত্তরাধিকারী হইলেন । শিখ-ইতিবৃত্তে অনেক তেজস্বিনী রমণীর কীৰ্ত্তিকাহিনী বর্ণিত হইয়াছে। মহাসিংহের জননী ঐ বীররমণীদের অন্ততমা । -