পাতা:শিখগুরু ও শিখজাতি.pdf/১১৯

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


gंकुश श्रृं ठुङ्ग. 苓创 বাৎসরিক ষাট সহস্র মুদ্রা নিষ্ক্রয়স্কপে প্রদান করিয়া তিন বৎসর, রক্ষা পাইয়াছিলেন । চতুর্থ বর্ষে সম্প্রদায়টি রণজিতের শাসনাধীন হইল। তিওয়ান (Tiwans) সম্প্রদায়ের মুসলমানের অত্যন্ত শক্তিশালী { ১৮৬৩ খৃঃাবে খ৷ বেগ খ৷ নামক ঐ সম্প্রদায়ের নায়ককে রণজিৎ বন্দী করেন । সহোদর ভ্রাতার সহিত খাবেগের পরম শক্রতা ছিল । রণজিৎ র্তাহাকে সহোদরের হস্তে অর্পণ করেন। খাবেগ ভ্রাতার হস্তে নিহত হইলেন । রণজিৎ শক্তিশালী তিওয়ানদিগকে প্রকাশ্রে আক্রমণ। করিতে সহসা সাহসী হইলেন না । ১৮১৭ খৃষ্টাব্দে তিনি তিওয়ানদের নুরপুর (Nurpur) দুর্গ আক্রমণ করেন । দুর্গ রণজিতের হস্তগত হইল ; তিওয়ান-নায়ক আহম্মদ ইয়ার খ (Ahmad Yar Khan) আরও কিছুকাল তাহার শাসনাধীন প্রদেশের প্রভু রছিলেন। মাঙ্কেরার (Mankera) নবাবের সহিত ইয়ারখার ভীষণ শক্রত ছিল । রণজিৎ ঐ নবাবের, সাহায্যে অল্পদিন মধ্যে তিওয়ানদের রাজ্য অধিকার করিলেন । - ১৮২১ খৃষ্টাব্দে রণজিং মাঙ্কেরার নবাব হাফিজ আহম্মদ খার রাজ্য আক্রমণ করেন । এই সময়ে তিওয়ানেরা পূৰ্ব্ব শত্রুত স্মরণ করিয়া প্রতিশোধগ্রহণের নিমিত্ত মহারাজের সৈন্যদলভূক্ত হুইল । রণজিতের পক্ষে মাঙ্কের জয় করা বড় অনায়াস সাধ্য হয় নাই। উক্ত রাজ্য মরুভূমির মধ্যে অবস্থিত, এবং চারিদিকে বারটা দুর্গ ইহাকে বেষ্টন করিয়া বুহিয়াছিল । মহারাজ রণজিতের অধ্যবসায় সমস্ত ৰাধা অতিক্রম করিয়াছিল । পচিশ দিন অবরোধের পর নবাব রণজিতের নিকট বস্ততা স্বীকার করেন । তিনি রণজিতের অধীনতা স্বীকার করিয়া, ডেরাইন্মাইল খাঁর শাসনকৰ্ত্ত নিযুক্ত হইয়াছিলেন । এই যুদ্ধে তিওয়ানের এমন বীরত্ব দেখাইয়াছিল যে, রণজিৎ পঞ্চাশজন ভিওয়ানকে আপনার. দেহ-রক্ষক নিযুক্ত করিয়া লাহোরে লইয়া আসেন। -