পাতা:শিখগুরু ও শিখজাতি.pdf/১২

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


竺疇 আমাদের দেশে বারংবার ইহাই দেখা গিয়াছে যে, এখা:ে শক্তির উদ্ভব হয় কিন্তু তাঙ্গার ধালাবাহিকতা থাকে না। মহাপুরুষের আসেন এবং তঁাহার। চলিয়া যান, তাহদের আবির্ভাবকে ধার করিবার, পালন করিবার, তাহাকে পূর্ণ পরিণত করিয়া তুলিবা স্বাভাবিক মুযোগ এখানে নাই । ইহার কারণ আমাদের বিচ্ছিন্নতা । যে মাটিতে আঠা একেবা:ে নাই সেখানেও বায়ুর বেগে বা পার্থীর মুখে বীজ আসিয়া পড়ে কিন্তু তাহা অঙ্কুরিত হয় না, অথবা দু-চারটি পাতা বাহির হইয়া মুম্বড়িয় যায়, কারণ, সেখানকার আলগা মাটি রস ধারণ করিয়া রাধিতে পারে না । আমাদের সমাজের মধ্যে বিচ্ছিন্নতার মার অন্ত নাই ; ধৰ্ম্মে কৰ্ম্মে, আহারে বিহারে, আদানে প্রদানে সৰ্ব্বত্রই বিচ্ছিন্নত। এই জন্ত ভাবের বন্ত নামে কিন্তু বালুর মধ্যে শুষিয়া যায়, তেজের ফুলিঙ্গ BB BB BBBBS BBB BB BBB BBD DDSgg BDS মহংসেষ্ট বৃহৎচেষ্টা হুইয়া উঠে না এবং মহাপুরুষ দেশের সর্বসাধারণের অক্ষমতাকে সমুজ্জ্বলভাবে সপ্রমাণ করিয়া নিৰ্ব্বাণ লাভ করেন । যাহা হউক মারাঠা ও শিথের অভৃথিান ও পতনের কারণসম্বন্ধে তুলনা করিয়া বলিতে হইলে এই বলা যায় যে, শিখ একদ একটি অত্যন্ত বৃহৎ ভাবের আহবানে একত্র হইয়াছিল—এমন একটি সত্যধৰ্ম্মের বাৰ্ত্ত তাহারা শুনিয়াছিল, যাহা কোনো স্থানবিশেষের চিরাগত প্রথার মধ্যে বন্ধ নহে এবং যাহা কোনো সময়বিশেষের উত্তেঙ্গনী হইতে প্রস্থত হয় নাই—যাহা চিরকালের এবং সকল মানবের, যাহী ছোটবড় সকলেরই অধিকারকে প্রশস্ত করে, চিত্তকে মুক্তি দেয় এবং যাদ্ধাকে স্বীকার করিলে প্রত্যেক মানুষই মনুষ্যত্বের পূর্ণতম গৌরবকে উপলব্ধি করে। নানকের এই উদার ধৰ্ম্মেৱ আছানে বহুশতাক্ট