পাতা:শিখগুরু ও শিখজাতি.pdf/১২৯

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


భి ఫి শিখগুরু ও শিখজাতি প্রতিকূল অবস্থার মধ্যেও অখণ্ড শিখরাজ্য-প্রতিষ্ঠার আকাঙ্ক্ষা তাহার ছিল । যথাসময়ে মেটকাফ রণজিতের নিকট সন্ধির প্রস্তাব উপস্থাপন করিলেন । তাহার মৰ্ম্ম এই যে, ইংরাজ ও রণজিৎ উভয়ের পরম শক্ৰ ফরাসীরা ভারতবর্ষ আক্রমণ করিলে রণজিৎ যেন ইংরাজপক্ষ অবলম্বন করিয়া তাহীদের বিরুদ্ধে দণ্ডায়মান হন । রণজিৎ আপনার সঙ্কট বুঝিয়াও ইংরাজদের ফরাসী-ভীতির সুযোগগ্রহণের চেষ্ট্র পাইলেন । তিনি জানাইলেন, ইংরাজ-গবর্ণমেণ্ট তাহাকে শতক্রর উভয়তীরবর্তী শিখরাজ্যের প্রভু বলিয়া স্বীকার করিলে, এই সন্ধিতে তাহার কোনে আপত্তি নাই । মেটকাফ দেখিলেন, রণজিৎ ইংরাজদের সহিত সন্ধি করিতে অভিলাষী নহেন, কারণ র্তাহার দাবী ইংরাজগবর্ণমেণ্ট কোনোকালে গ্রাহ করিবেন না। তিনি রণজিতের হস্তে প্রস্তাবের একখানি পাণ্ডুলিপি প্রদান করিয়া তাহার দৌত্য-কাৰ্য্য শেষ করিলেন । মহারাজ রণজিৎও একখানি প্রস্তাবপত্রিক প্রদান করিলেন। তাহাতে দুইটি দাবী ছিল ;–প্রথম র্তাহাকে শতদ্রুর উভয়তীরবর্তী শিখরাজ্যের প্রভু বলিয়া স্বীকার করিতে হইবে ; দ্বিতীয় কাবুলের সহিত র্তাহার যুদ্ধব্যাপারে ইংরাজ কোনোরূপে হস্তক্ষেপ করিবেন না । মহারাজ রণজিৎ সন্ধির প্রস্তাবের প্রতি বিন্দুমাত্র শ্রদ্ধা প্রকাশ করেন নাই। তিনি ইংরাজদূতের উপস্থিতিসময়েই সসৈন্তে শতদ্রু পার হইয়া রাজ্যবিস্তারের চেষ্টা করিতেছিলেন । তিনি আম্বালা ও লুধিয়ান অধিকার এবং পাতিয়ালার মহারাজের সহিত শিরোপা বিনিময় করিয়া মৈত্রী স্থাপন করেন । মেটকাফ সাহেব কলিকাতায় গবর্ণর জেনারেলের সমীপে রণজিতের