পাতা:শিখগুরু ও শিখজাতি.pdf/১৭৪

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


উনবিংশ অধ্যায় >8登 সমবেত হইতেছিল। আস্বালা ও লুধিয়ানার সৈন্যদলসহ হার্ডিঞ্জ বাহাঙ্কুর ও গফ সাহেব ১৮ই ডিসেম্বর তারিখে ফেরোজপুরের বিশ মাইল দূরবর্তী মুদ্‌কি নামক স্থানে উপনীত হইলেন । যুদ্ধলোলুপ শিখসৈন্যেরাও অগ্রসর হইল । ইংরাজপক্ষে এগার সহস্র সৈন্ত ও বিয়াল্লিশটা কামান, শিখপক্ষে ত্ৰিশ সহস্র সৈন্ত ও চল্লিশটা কামান ছিল । ১৮ই ডিসেম্বর তারিখে বেল চারি ঘটিকায় সময়ে উভয় পক্ষে যুদ্ধ বাধিয়া গেল । অনুচ্চ বালুক-শৈলের উপরিভাগে ঝোপের আড়ালে থাকিয়া শিথসৈন্তের অবিশ্রাম গুলি বর্ষণ করিতেছিল ; তাহাদের অব্যর্থ সন্ধানে ইংরাজসৈনিকের হত ও অহিত হইতে লাগিল । ইংরাজপক্ষীয় পদাতিকের ঐ গোলাবৃষ্টি অগ্রাহ করিয়া ধীরে ধীরে অগ্রসর হইতেছিল। বেলা চারিটা হইতে সন্ধ্যাপৰ্য্যন্ত উভয়পক্ষে তুমুল সংগ্রাম চলিল । গাঢ় অন্ধকারে যখন ইংরাজ পক্ষীয় পদাতিক ও অশ্বারোহীর ভীষণবেগে শিথসৈন্তদের উপর পতিত হইল তখন তাহারা ভীত হইয়া পলায়ন করিতে আরম্ভ করিল। মুদ্রকির দশ মাইল দূরে ফেরোজসাহ নামক স্থানে শিখদের একটি দুর্গ ছিল । তাহারা দ্রুতবেগে তথায় যাইয়া আশ্রয় লইল । মুকির যুদ্ধে শিখেরা পরাজিত হইলেও এই যুদ্ধে শিখপক্ষের অতি অল্পসংখ্যক সৈন্তই প্রাণ হারাইয়াছিল । বিজয়ী ইংরাজের যুদ্ধান্তে শিখদের ১৭ টা কামান প্রাপ্ত হইল কিন্তু ইংরাজপক্ষীয় ১৩জন যুরোপীয় ও ২ জন দেশীয় কৰ্ম্মচারী এবং ১০০ সৈনিক ও সহিস নিহত হইয়াছিল । আহত কৰ্ম্মচারী ও সৈনিকের সংখ্যা ৬৫৭ ৷ মুদ্‌কিযুদ্ধে শিখেরা বিশেষ কোনো ক্ষতিগ্রস্ত হয় নাই বলিয়া সেদিনের পরাজয় তাহাদিগকে কিছুমাত্র ভীত বা নিরাশ করিতে পারে নাই । ভবিষ্ণুং জয়লাভের আশা হািদয়ে পোষণ করিয়া আবার তাহারা যুদ্ধের আয়োজন করিতে প্রবৃত্ত হইল। তাহারা তাহাদের আশ্রয়-স্থল ফেরোজ সাহু দুর্গটি যথাসম্ভব সুরক্ষিত করিয়া তুলিল । I ().