পাতা:শিখগুরু ও শিখজাতি.pdf/১৭৫

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ソ8や2 শিখগুরু ও শিখজাতি এদিকে ইংরাজদের সৈন্যবল দিন দিন বাড়িতেছিল-মুদকি যুদ্ধের পর দিন হইতেই নব নব সৈন্যদল আসিতেছিল----২১এ ডিসেম্বর তারিখে ফেরোজপুরের সৈঙ্গেরাও আসিয়া প্রধান সেনাপতির সৈন্তদের সহিত মিলিত হইল। প্রধান সেনাপতি স্তার ছিউ গফ আর কালবিলম্ব না করিয়া ঐ দিনই সপ্তদশ সহস্র সৈন্ত ও ৬৯টা কামানসহ শিখ সেনানিবেশের অনতিদূরে যুদ্ধার্থে উপনীত লইলেন। স্তার হার্ডিঞ্জ ও প্রধান সেনাপতি মহাশয় যথাক্রমে সৈন্যদলের দক্ষিণ ও বাম পাশ্ব পরিচালনারভার লইয়াছিলেন । বেলা তিন ঘটিকার সময়ে সংবাদ আসিল, শিথসৈঙ্গের ইংরাজ দিগকে আক্রমণ করিবার অভিপ্রায়ে অগ্রসর হইতেছে । অবিলম্বে স্যার হিউ গফ সসৈন্তে দুই মাইল অগ্রসর হইয়া বিপক্ষ সেনার সম্মুখীন হইলেন । যুদ্ধার্থ শিখ ও ইংরাজ-সৈন্স যে প্রাস্তরে সমবেত হইয়াছিল তথায় স্থানে স্থানে ঘন জঙ্গল ও বালুকাশৈল ছিল । মুদ্‌কির স্তায় এখানেও শিথের অরণ্যের আড়াল হইতে গুলি চালাইতেছিল। ইংরাজপক্ষের পদাতিক সৈন্ত সতর্কভাবে অগ্রসর হইয়া শিথসৈন্যদের হস্তহইতে বলপূৰ্ব্বক কামান ও বন্দুক কাড়িয়া লইতে লাগিল । উভয় পক্ষে ভীষণ-সংগ্রাম চলিল । সন্ধ্যাবেলা ইংরাজের শিখসৈন্তদিগকে ছিন্ন ভিন্ন করিয়া দুর্গের একাংশে প্রবেশ করল । এক মাইল দীর্ঘ, অৰ্দ্ধ মাইল বিস্তৃত সমান্তরালক্ষেত্রারুতি সেই দুর্গমধ্যে উভয় সৈন্যদল ংগ্রাম চালাইতে লাগিল । জীবনপাত করিয়াও ইংরাজপক্ষীয় সৈন্তাগণ অধিকৃত দুর্গtংশ রক্ষা করিতেছিল। এইরূপ ভাবে সেই ভীষণ রঞ্জনী কাটিয়া গেল । এই রাত্রির বর্ণনা করিয়া স্যার হেনরি হার্ডিঞ্জ ইংলণ্ডের তদানীন্তন, প্রধান সচিব স্যার রবার্ট পিন মহোদয়কে এক পত্র লিখিছিলেন।