পাতা:শিখগুরু ও শিখজাতি.pdf/১৭৭

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


>8。 শিখগুরু ও শিখঞ্জাতি এদিকে দুইবার পৃষ্ঠভঙ্গ দিয়াও শিখসৈন্তদের সংগ্রামলালসা প্রতিনিবৃত্ত হয় নাই, তাহারা আবার যুদ্ধ করিবার নিমিত্ত রসদ ও সৈন্য সংগ্রহের চেষ্টা করিতে লাগিল । তাহদের অভাবের সংবাদ * লাহোর দরবারে প্রেরিত হইল যুদ্ধকুশল শিথসৈন্তের ইতিমধ্যেই সুদক্ষ নায়কের আবশুকত অনুভব করিয়ছিল ; তাহার রাজা গোলাপ সিংহকে তাহাদের অধিনায়কতা গ্রহণ করিবার জন্য আহবান করিল । সৈন্তেরা তাহাকে উজীর পদ প্রদানের প্রলোভনও দেখাইল কিন্তু সুচতুর গোলাপসিংহ কিছুতেই ইংরাজদের বিরুদ্ধে অস্থধারণ করিতে সন্মত হইলেন না ! ফেরোজসাছযুদ্ধের অব্যবহিত পরে তিনি লাহোর রাজসরকারের অন্যতম মন্ত্রী নিযুক্ত হইয়া গোপনে ইংরাজদের সহিত সন্ধিস্থাপনের চেষ্টা করিতেছিলেন, কিন্তু তাহার সেই চেষ্ট ব্যর্থ হইল । লাহোর-গবর্ণমেণ্ট রসদ ও সৈন্তসংগ্ৰহ করিয়া খালস সৈন্তদলের বল বুদ্ধি করিলেন । উন্মত্ত সৈন্যের দল লাহোরে ফিরিয়া আসিয়া অনর্থ ঘটাইতে পারে এইরূপ মনে করিয়া লাহোরগবর্ণমেণ্ট তাহাদিগকে যুদ্ধ হইতে নিরক্ত করেন নাই, এমন কি দলিপসিংহের জননী একদিন প্রকাশু দরবারে সৈন্যদের প্রতিনিধি-দি গকে পরুষ ভাবে অপদার্থ অকৰ্ম্মণ্য বলিয়া ভংসেনা করিয়া বলিয়াছিলেন -“রমণীর পোষাক পরিয়া তোমরা আসিয়া অন্তঃপুরে বাস কর, আমি স্বয়ং যুদ্ধক্ষেত্রে যাইব” ;–রমণীর তীব্র তিরস্কারে সৈন্যদের প্রতিনিধির উত্তেজিত হইয়া বলিলেন--“আমরা আপনার জন্য, স্বদেশের জন্য, গুরুঞ্জীর জন্য প্রাণ বিসর্জন করিতে চলিলাম।” এবার পনর সহস্ৰ শিথসৈন্য ৬৭টা কামান লইয়া লুধিয়ানার ইংরাজ-দুর্গ অবরোধ করিল। প্রারম্ভে তাহার এমন ভীষণ ভাবে যুদ্ধ চালাইতেছিল যে, ইংরাজদিগকে চিন্তিত হইতে হইয়াছিল । এগারে।