পাতা:শিখগুরু ও শিখজাতি.pdf/৩৬

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শিখগুঞ্জ ও শিখজাতি يا لا গুরুর পায় বিকাইয়া দিয়া তাহার সেবক হইয়াছিলেন । পুত্র ঐচাদ ও লক্ষ্মীদাস পিতার যে কঠোর আদেশ পালনে পরায়ুখ হইতেন, লহিনী সেই আয়াস-সাধ্য আদেশগুলি প্রসঙ্গচিত্তে পালন করিতেন । নানক শিষ্যদের গুরুভক্তির দৃঢ়তাপরীক্ষার জন্ত কখনো কখনো ইচ্ছাপূৰ্ব্বক তাহুদিগের প্রতি অত্যাচার করিতেন । লহিনী গুরুর সেই সকল উৎপীড়ন অম্লান বদনে সহ করিতেন। তাহার অনুরাগ, বিনয়, শ্রদ্ধা ও ভক্তি দর্শনে বাবা নানক বিস্মিত হইয়াছিলেন। তিনি তাহাকে আপন হইতে সম্পূর্ণ অভিন্ন বলিয়া মনে করিতেন এবং তজ্জন্ত প্তাহার নাম অঙ্গদ রাখিয়াছিলেন । গুরুভক্ত অঙ্গদকে শিখের বাবা মানকের তুলাই ভক্তি করিত। তিনি নানকের পদাঙ্কানুসরণ করিয়া শিখ-ধৰ্ম্মের প্রচারকল্পে যথাশক্তি চেষ্টা করিতে লাগিলেন। বিপাশা নদীর তীরে খড়র নামক গ্রামে তিনি বাস করিতেন । গুরু নানক তাহার পুত্র শ্ৰীচাদ ও লক্ষ্মীদাসকে অতিক্রম করিয়া লহিনাকে শিখসমাজের গুরুপদ প্রদান করায় স্ত্রীর্চাদ মৰ্ম্মাহত হইয়াছিলেন । তিনি সন্ন্যাসত্রত গ্রহণ করিয় , উদাসী-শিখ - সম্প্রদায় স্থাপন করেন । - . নানকের সহচর বালসিন্ধু গুরু অঙ্গদের সহিত মিলিত হইয়াছিলেন। তাহার মুখে নানকের চরিত-কথা শুনিয়া গুরু অঙ্গদ জন্মসাক্ষীগ্রন্থ রচনা করেন। তদুভিয় তিনি গুরুমুখী ভাষার অক্ষর স্বষ্টি করিয়াছিলেন । এই গুরুমুখী ভাষাতেই সমস্ত শিখ ধৰ্ম্মশাস্ত্র বিরচিত হইয়াছে। গুরু অঙ্গদের মধুর উপদেশগুলি গ্রন্থসাহেবের দ্বিতীয় শকমহল্লা বলিয়া খ্যাত । * মহাত্মা নানক গুরুপদ বংশগত না করিয়া যোগ্যতম শিষ্যকে প্রদান