পাতা:শিখগুরু ও শিখজাতি.pdf/৫৩

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


లి: শিথগুরু ও শিখজাতি তাহার শিরচ্ছেদন করিল। কৌতুহলী সমাটু রক্ত-রঞ্জিত কাগজখও ভূমি হইতে কুড়াইয়া লইয়া পাঠ করিলেন । উহাতে লেখা ছিল— “শির দিয়; শ্বির নে দিয়া ! ** ** মাথা দিলাম কিন্তু বিশ্বাস ত্যাগ করিলাম না । ” ১৬৭৫ খং মদে তেজস্ব তেগ বাহাদুর উল্লিখিতরূপে মৃত্যুকে আলিঙ্গন করিয়াছিলেন। কোনো কোনো গ্রন্থে প্রকাশ– দিল্লী নগরের কারাগৃহে অবস্থানকালে গুরু স্বেচ্ছায় মৃত্যুকে বরণ করিয়াছিলেন । তিনি যখন বুঝিতে পারিলেন যে অচিরে সম্রাটের আদেশে তাছার মুণ্ড দেহত্যুত হইবে, তখন তিনি মুসলমানের হস্ত হইতে মৃত্যুদণ্ড গ্রহণের লাঞ্ছনা এড়াইবার নিমিত্ত এক বনী শিখকে তাহার শিরশেছদন করিতে আদেশ করেন । গুরুর সহিত তর্কে পরাজিত হইয় উক্ত শিখ তাহার নির্দয় আদেশ পালন করিয়াছিল । শিখধৰ্ম্মের গৌরব অক্ষুণ্ণ রাখিবার নিমিত্ত তেগ বাহাদুর আপনার জীবন দান করিলেন । তাহার ধৰ্ম্মপ্রাণতা, মৃত্যুর প্রতি উপেক্ষ ও বীরত্ব শিখসম্প্রদায়ের মধ্যে অভিনব শক্তি সঞ্চারিত করিল। গুরুর নৃশংস হত্যার কথা শুনিয়াও দলে দলে লোক শিখধৰ্ম্ম গ্রহণ করিয়া সম্প্রদায়কে বলশালী করিয়া তুলিল। সত্য সত্যই তেগ বাহাদুরের শেষোক্তি—“শির দিয়া শির নে দিয়া”—তাহার মৃত্যুর পরে অলৌকিক কাৰ্য্য সাধন করিয়াছিল ।